গর্বিত দেশ! পদ্মশ্রী সম্মানে ভূষিত বাংলার মেয়ে মৌমা দাস

গর্বিত দেশ! পদ্মশ্রী সম্মানে ভূষিত বাংলার মেয়ে মৌমা দাস
গর্বিত দেশ! পদ্মশ্রী সম্মানে ভূষিত বাংলার মেয়ে মৌমা দাস

প্রায় দু’দশক ধরে ভারতের হয়ে টেবিল টেনিস খেলছেন বাংলার মেয়ে মৌমা দাস। কমনওয়েলথ গেমস, এশিয়ান গেমস সহ একাধিক আন্তর্জাতিক ম্যাচে একাধিক আন্তর্জাতিক ম্যাচে দেশের মুখ উজ্জ্বল করেছেন তিনি। স্বীকৃতি স্বরূপ এবার পদ্মশ্রী সম্মানে ভূষিত হলেন টেবিল টেনিস তারকা। তাঁর এই সম্মানে গর্বিত বাংলা তথা দেশের ক্রীড়া জগৎ।

কুড়ি বছরের বেশি কেরিয়ারে ৭৫-এর বেশি দেশের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেছেন মৌমা। ৪০০-র বেশি ম্যাচ খেলার নজিরও গড়েছেন। প্রথম আন্তর্জাতিক পদক ২০০০ সালে। অলিম্পিক্সে প্রথম অংশ নেন ২০০৪ সালে। তবে তেমন কিছু করে উঠতে পারেননি। এরপর ২০১৫ সালে কমনওয়েলথে রুপো জেতেন তিনি।

সুযোগ পান ২০১৬ রিও অলিম্পিক্সেও। যদিও সেখানেও বেশিদূর এগোতে না পারেননি মৌমা। এরপর ২০১৭ বিশ্ব টেবিল টেনিস টুর্নামেন্টে দেশের আরেক টেবিল টেনিস তারকা মনিকা বাত্রার সঙ্গে জুটি বেঁধে কোয়ার্টার ফাইনালে পৌঁছন কলকাতার মেয়ে। মণিকার সঙ্গে জুটিতে ২০১৮ কমনওয়েলথ গেমসেও রুপোর পদক আসে মৌমার ঝুলিতে। কমনওয়েলথে ভারতের হয়ে সর্বোচ্চ পদকজয়ী এই বাংলার মেয়ে।

ক্রীড়া জগতে তাঁর অনন্য অবদানের জন্য ২০১৩ সালে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ক্রীড়া পুরস্কার অর্জুন পুরস্কারে ভূষিত হন মৌমা। ২০২১-এ পেলেন পদ্মশ্রীও। তাঁর সাফল্য কাহিনী এবং অবদান যে ভারতীয় টেবিল টেনিসের ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে অনুপ্রাণিত করবে, এ কথা বলাই বাহুল্য।