IND vs NZ: শহরে পা রোহিত বিগ্রেড ও কিউয়ি বাহিনীর! শেষ টি-২০-তে জয়ের হাসি কে হাসবে?

IND vs NZ: শহরে পা রোহিত বিগ্রেড ও কিউয়ি বাহিনীর! শেষ টি-২০-তে জয়ের হাসি কে হাসবে?
IND vs NZ: শহরে পা রোহিত বিগ্রেড ও কিউয়ি বাহিনীর! শেষ টি-২০-তে জয়ের হাসি কে হাসবে?

শুক্রবারই রাঁচির জেএসসিএ স্টেডিয়ামে দ্বিতীয় টি-২০ ম্যাচে নিউজিল্যান্ডকে ৭ উইকেটে হারিয়ে দিয়েছে রোহিত শর্মার নেতৃত্বাধীন টিম ইন্ডিয়া। ফলে প্রথম দুই ম্যাচ জিতে তিন ম্যাচের এই সিরিজে ২-০ এগিয়ে গেল ভারত। এক ম্যাচ বাকি থাকতেই টি-২০ সিরিজ পকেটে পুরলেন রোহিত বাহিনী। এবার ‘হোয়াইট ওয়াশ’-এর লক্ষ্যে ‘দাদা’র শহরে পা রাখলেন রোহিতরা।

সৌরভ গাঙ্গুলির ‘ঘরের মাঠ’ ইডেন গার্ডেন্সে হবে সিরিজের তৃতীয় তথা শেষ ম্যাচ। তা খেলতে শনিবার বিকেল পৌনে চারটে নাগাদ দমদম বিমানবন্দরে নামলেন রোহিতের নেতৃত্বাধীন ভারত ও টিম সাউদির নেতৃত্বাধীন নিউজিল্যান্ড দল। সেখান থেকে তাঁরা নির্দিষ্ট টিম বাসে চেপে হোটেলের উদ্দেশ্যে রওনা হন দুই দলের ক্রিকেটাররা। রবিবার কিউয়িদের বিরুদ্ধে জয় ছিনিয়ে নিতেই মাঠে নামবেন রোহিতরা। তবে প্রথম দুটো ম্যাচে হেরে নিউজিল্যান্ড চাপে থাকলেও, শেষ ম্যাচে কিন্তু ছেড়ে কথা বলবে না তারাও। যদিও সিরিজ ইতিমধ্যেই জিতে নিয়েছে ভারত, তবুও দর্শকদের উত্তেজনার কমতি নেই। ইডেনের এই ম্যাচে জয়ের হাসি কে হাসবে, তা জানতে উৎসুক দর্শকরাও।

প্রায় ২ বছর পর ইডেনে হতে চলেছে কোনও আন্তর্জাতিক ম্যাচ। কলকাতায় সবে শেষ হয়েছে উৎসবের মেজাজ। এর মধ্যেই ইডেনে খেলতে আসবেন রোহিত-সাউদিরা। ফলে শহরের ক্রিকেট পাগল দর্শকদের কাছে ম্যাচের টিকিটের চাহিদাও তুঙ্গে। ইডেনেও এখন সাজো সাজো রব। স্টেডিয়ামে বসছে বিশেষ আলো। চারটে ব্লকের বাইরে সেই আলো বসবে। ভারতে এই প্রথম কোনও ম্যাচে এমন আলোকসজ্জায় সাজছে কোনও স্টেডিয়াম। ফলে হিরের মতো উজ্জ্বলতায় ঝকঝক করবে ক্রিকেটের নন্দনকানন!

অন্যদিকে, ইডেন পরিদর্শনে প্রশাসন মহলেও ব্যস্ততা বেড়েছে৷ কখনও পরিদর্শনে আসছে দমকল বিভাগ, কখনও বা পূর্ত বিভাগ। কলকাতা পুলিশের পক্ষ থেকেও ইডেনের প্রস্তুতি খতিয়ে দেখা হয়। এসবের মধ্যেই আবার শুক্রবারের সন্ধ্যেতে ইডেনে হাজির ভারতীয় বোর্ড সভাপতি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। পিচ কিউরেটর সুজন মুখোপাধ্যায়ের সঙ্গে নিয়ে তিনি পিচ পরিদর্শন করেন। পরিকাঠামো এবং প্রস্তুতি সংক্রান্ত সমস্ত খবর নেন। ইডেনে কোন আন্তর্জাতিক ম্যাচ থাকলে বরাবরই খেলার আগে পিচ পরীক্ষা করেন সৌরভ৷ এ বারও তার ব্যতিক্রম হল না। ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের হেড কিউরেটর আশিষ ভৌমিকের সঙ্গেও কথা বলেন দাদা। রবিবারের ম্যাচ নিয়ে তাঁর উৎসাহও নেহাত কম নয়!