ভাড়া কমানোর বিকল্প পথ খুঁজতে বৈঠকে বসছে বাস সংগঠন-রাজ্য

ভাড়া কমানোর বিকল্প পথ খুঁজতে বৈঠকে বসছে বাস সংগঠন-রাজ্য
ভাড়া কমানোর বিকল্প পথ খুঁজতে বৈঠকে বসছে বাস সংগঠন-রাজ্য

বাসের ভাড়া বাড়ানো যাবে না। বরং অন্যভাবে বাস মালিকদের পুষিয়ে দেওয়া হবে। বাস মালিক সংগঠনের সঙ্গে বৈঠকে এমনটাই আশ্বাস দিয়েছিলেন রাজ্যের পরিবহনমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। কিভাবে বিকল্প জ্বালানি হিসেবে সিএনজিকে ব্যবহার করা যেতে পারে সেই নিয়ে আলোচনা করতে ফের বৈঠকে বসতে চলেছে বাস মালিক সংগঠন এবং রাজ্যের পরিবহন দপ্তর। জানা গেছে, আগামী বুধবার এই বৈঠক হবে।

পেট্রোপণ্যের দাম বৃদ্ধিতে বাস ভাড়া বৃদ্ধি করেছে মালিক সংগঠন। বাসে গাদাগাদি ভিড় করে যাত্রী নিয়ে অসন্তোষ দেখা দিয়েছে যাত্রীদের মধ্যেই। এই নিয়ে অভিযোগ এসেছে ভুরি ভুরি। এরপরে বাস মালিক সংগঠনের সঙ্গে বৈঠকে বসে ছিল পরিবহন দপ্তর। সেখানেই জানানো হয়েছিল কোন ভাবেই বাসের ভাড়া বাড়ানো যাবে না। এমনকি তখন বিকল্প হিসেবে রাজ্য সরকারের পুরনো বাতিল বাসকে সিএনজি ব্যাটারি লাগিয়ে আধুনিক করা হবে বলে জানান পরিবহন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম।

এরপর আগামী সপ্তাহে ফের সব পক্ষকে নিয়ে বৈঠকে বসতে চলেছে রাজ্যের পরিবহন দপ্তর। সেখানে মূলত এই সমস্যা সমাধানের জন্য বিকল্প জ্বালানি হিসেবে সিএনজি চালিত বাসকে কত তাড়াতাড়ি, কিভাবে রাস্তায় নামানো যায় তা নিয়ে আলোচনা হতে পারে। তবে কোনভাবেই বাসের ভাড়া বাড়ানো যাবে না বলে নিজেদের সিদ্ধান্তে অনড় রাজ্য।

এদিকে ফিরহাদ হাকিম জানিয়েছিলেন ইতিমধ্যেই পুনে থেকে এক বিজ্ঞানী যোগাযোগ করেছেন পুরনো বাতিল ডিজেল বাস্কে ব্যাটারি চালিত বাসে রূপান্তরিত করার জন্য। এছাড়াও একাধিক বিশেষজ্ঞের সঙ্গে রাজ্য সরকার এই বিষয়ে যোগাযোগ করছে বলেও জানা গিয়েছে। করা হচ্ছে সিএনজির কোম্পানির সঙ্গেও। খুব শীঘ্রই এই বিষয়ে রাজ্য দিশা দেখাবে বলে আশাবাদী রাজ্যের পরিবহনমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম।