নির্বাচনী প্রচারে উস্কানিমূলক মন্তব্য! মিঠুন চক্রবর্তীকে ভার্চুয়ালি জিজ্ঞাসাবাদের নির্দেশ দিল কলকাতা হাইকোর্ট

নির্বাচনী প্রচারে উস্কানিমূলক মন্তব্য! মিঠুন চক্রবর্তীকে ভার্চুয়ালি জিজ্ঞাসাবাদের নির্দেশ দিল কলকাতা হাইকোর্ট
নির্বাচনী প্রচারে উস্কানিমূলক মন্তব্য! মিঠুন চক্রবর্তীকে ভার্চুয়ালি জিজ্ঞাসাবাদের নির্দেশ দিল কলকাতা হাইকোর্ট

বংনিউজ২৪x৭ ডেস্কঃ রাজ্যে শেষ হয়েছে ভোট যুদ্ধ। তৃতীয়বারের জন্য রাজ্যের ক্ষমতায় এসেছে তৃণমূল শিবির। তৃতীয়বারের জন্য রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ২০২১ এর নির্বাচনের আগে এবার বহু তারকায় নাম লেখান রাজনীতিতে। আর তারমধ্যে অন্যতম হলেন মহাগুরু মিঠুন চক্রবর্তী। তিনি বিজেপিতে যোগ দান করেন।

উল্লেখ্য বিজেপির নির্বাচনী প্রার্থী তালিকায় মিঠুনের নাম না থাকলেও বিজেপিতে যোগদানের পর থেকেই বিজেপির প্রচারে নানা সভা করতে দেখা গেছে মিঠুন চক্রবর্তীকে। এবং সভায় তাঁকে নিজের অভিনীত সিনেমার – মারব এখানে লাশ পরবে শ্মশানে, আমি জাত গোখরো, এক ছোবলে ছবি ইত্যাদি নানা সংলাপ বলতেও দেখা যায়। আর এসব সংলাপের দ্বারা অভিনেতা হিংসা ছড়িয়েছেন বলে অভিযোগ জানায় তৃণমূল।

এমনকি অভিনেতার বিরুদ্ধে মানিকতলা থানায় এফআইআর দায়ের করে তৃণমূল। মূলত অভিনেতার বিরুদ্ধে ভারতীয় দন্ডবিধি অনুযায়ী অপরাধমূলক ষড়যন্ত্র (১২০বি), বিভিন্ন গোষ্ঠী এবং বিভিন্ন ধর্মাবলম্বীদের মধ্যে বিদ্বেষ ছড়ানো (১৫৩এ), উস্কানিমূলক মন্তব্য করে শান্তিভঙ্গের চেষ্টা (৫০৪, ৫০৫) -সহ একাধিক আইনে মামলা হয় বলে জানা গেছে।

অন্যদিকে গত মঙ্গলবার এই মামলা খারিজের আর্জি জানিয়ে কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্ত হন অভিনেতা তথা বিজেপি নেতা মিঠুন চক্রবর্তী। হাইকোর্টে অভিনেতা জানান তৃণমূলের করা অভিযোগ পুরোপুরি ভিত্তিহীন। সভায় সংলাপ বলার পিছনে তাঁর কোনও খারাপ উদ্দেশ্য ছিলনা বলে জানান তিনি। তিনি জনতাদের দাবী রাখতে সংলাপ বলেন বলে জানান তিনি। আর এবার এই মামলায় মিঠুন চক্রবর্তীকে ভার্চুয়ালি জিজ্ঞাসাবাদের নির্দেশ দিল কলকাতা হাইকোর্ট।