ধ্বংসলীলা চালাতে শক্তি বাড়িয়ে চলেছে ঘূর্ণিঝড় ‘তাউকতাই’, ঝড়ের গতিবেগ ঘণ্টায় ১৭৫ কিমি হওয়ার সম্ভাবনা!

ধ্বংসলীলা চালাতে শক্তি বাড়িয়ে চলেছে ঘূর্ণিঝড় ‘তাউকতাই’, ঝড়ের গতিবেগ ঘণ্টায় ১৭৫ কিমি হওয়ার সম্ভাবনা!
ধ্বংসলীলা চালাতে শক্তি বাড়িয়ে চলেছে ঘূর্ণিঝড় ‘তাউকতাই’, ঝড়ের গতিবেগ ঘণ্টায় ১৭৫ কিমি হওয়ার সম্ভাবনা! / প্রতীকী ছবি

বংনিউজ২৪x৭ ডেস্কঃ রাজ্যে আজকের আবহাওয়া – Ajker Abhawa কেমন থাকবে একনজরে দেখে নেওয়া যাক। এবছর শীত যেমন দীর্ঘস্থায়ী ছিল, সেরকম গরমও রেকর্ড পড়বে বলেই আগেই জানিয়েছিল আবহাওয়া দপ্তর। ইতিমধ্যেই রাজ্যের জেলায় জেলায় তাপমাত্রা বৃদ্ধি পেয়েছে।

অন্যদিকে আজ সকাল থেকেই রোদের দেখা মিলছে। রাজ্যে গতকাল থেকে ফের বৃদ্ধি পেয়েছে তাপমাত্রা। জানা গেছে আরব সাগরে তৈরি হওয়া ঘূর্ণিঝড় এর প্রভাবে রাজ্যে প্রচুর শুষ্ক বাতাস প্রবেশ করছে। আর তার ফলেই বৃদ্ধি পেয়েছে তাপমাত্রা। উল্লেখ্য ভয়াবহ রূপ নিয়ে গুজরাত উপকূলে আছড়ে পরতে চলেছে আরব সাগরে তৈরি হওয়া শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় তাউকতাই।

স্কাইমেটের পূর্বাভাস অনুযায়ী, আরব সাগরে তৈরি হওয়া নিম্নচাপ ধীরে ধীরে শক্তি বাড়িয়ে ঘূর্ণিঝড়ে পরিনত হয়ে আগামী ১৮ মে মঙ্গলবার বিকেলে আছড়ে পরতে চলেছে গুজরাত ও পাকিস্থানে। ইতিমধ্যে গুজরাত রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী বিজয় রুপানি রাজ্যজুড়ে সতর্কতা জারি করেছেন, সঙ্গে সবরকম ভাবে প্রস্তুত থাকার কথা জানিয়েছেন উপকূলবর্তী জেলাগুলির প্রশাসনকে। ১৬ থেকে ১৯ মে এর মধ্যে ভয়ঙ্কর রূপ নিতে চলেছে এই ঘূর্ণিঝড়। মৌসম বিভাগের পূর্বাভাস অনুযায়ী, এই ঘূর্ণিঝড় গত ৬ ঘণ্টায় ৯ কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টা গতিতে এগিয়ে চলেছে উপকূলের দিকে৷ বর্তমানে ঘূর্ণিঝড় গুজরাত তটভূমির থেকে ১৬০ কিলোমিটার ও গোয়ার পানাজি থেকে ৩৫০ কিলোমিটার দূরে রয়েছে বলে জানা গেছে৷ উপকূলভাগে আছড়ে পড়ার সময় ঘূর্ণিঝড়ের গতি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে ১৪০ -১৫০ কিলোমিটার। এছাড়া জানা গেছে আজ রাত থেকেই অতি ভীষণ সাইক্লোনে পরিণত হবে এই সাইক্লোন৷ এবং ১৮ মে সন্ধ্যা নাগাদ পোরবন্দর ও নালিয়া তট এলাকায় আছড়ে পরার সম্ভাবনা রয়েছে৷ ঝড়ের গতিবেগ ১৫০-১৬০ কিলোমিটার ও কখনো ১৭৫ কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টাও হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানিয়েছে আইএমডি।

আর সেই কারণে ইতিমধ্যেই কেরল, তামিলনাড়ু, কর্নাটক, মহারাষ্ট্র, গোয়া, লাক্ষাদ্বীপ ও দক্ষিণ কঙ্কন এ ভারী বৃষ্টির সতর্কতা জারি করেছে আবহাওয়া দপ্তর। এই সকল উপকূলীয় স্থানে সমুদ্র উত্তাল হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। স্কাইমেটের পূর্বাভাস অনুযায়ী, আজ থেকেই লাক্ষাদ্বীপ, কেরল, কর্ণাটক, তামিলনাড়ু, কোঙ্কন, গোয়া এর বেশ কিছু অঞ্চলে ভারী বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে৷ মুম্বই ও থানেতে জারি হয়েছে ইয়েলো অ্যালার্ট ৷ এবং গুজরাট ও কেরলের বেশ কিছু জেলায় জারি হয়েছে অরেঞ্জ অ্যালার্ট৷ ইতিমধ্যেই সতর্কতা নিয়ে অ্যালার্ট রয়েছেন এনডিআএফ-এর ৫৩টি টিম। অন্যদিকে ১৮ মে থেকে ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে সৌরাষ্ট্র, কচ্ছে। ইতিমধ্যেই মৎসজীবীদের সমুদ্রে যাওয়ার ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছে। যাঁরা সমুদ্রে গিয়েছেন তাঁদের ফিরে আসারও নির্দেশ জানিয়েছে প্রশাসন।