আসামিকে গ্রেপ্তার করতে গিয়ে দুষ্কৃতীদের হাতে আহত হলেন কালিয়াচক থানার ১ এসআই সহ পুলিশকর্মীরা

আসামিকে গ্রেপ্তার করতে গিয়ে দুষ্কৃতীদের হাতে আহত হলেন কালিয়াচক থানার ১ এসআই সহ পুলিশকর্মীরা
আসামিকে গ্রেপ্তার করতে গিয়ে দুষ্কৃতীদের হাতে আহত হলেন কালিয়াচক থানার ১ এসআই সহ পুলিশকর্মীরা / নিজস্ব ছবি

নিজস্ব প্রতিবেদনঃ মালদাঃ কালিয়াচক থানার মজমপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের ইমাম জাগিরে একাধিক মামলার জড়িত এক আসামিকে গ্রেপ্তার করতে গিয়ে উত্তেজিত দুষ্কৃতীদের হাতে আহত হন এক এসআই সহ পুলিশকর্মীরা। জানা যায় মজমপুর এর ইমাম জাগিরে রবিবার রাত্রে ভলিবল প্রতিযোগিতা চলছিল, সে সময় পুলিশের নিকট বিশেষ সূত্রে খবর আছে একাধিক মামলায় জড়িত হাজরু শেখ সেখানে উপস্থিত হয়েছে। খবর পাওয়া মাত্রই কালিয়াচক থানার পুলিশ বাহিনী ছুটে যায় ইমাম জাগির এলাকায়। সেখানে সেই দুষ্কৃতীকে গ্রেপ্তার করতে গেলে দুষ্কৃতীদের আঘাতে মাথা ফেটে যায় কালিয়াচক থানার এসআই বিশ্বজিৎ গুহর এবং আহত হন আরও কয়েকজন পুলিশ কর্মী।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, বিশেষ সুত্র মারফত খবর আসে মজমপুর এর ইমাম জাগিরে ১৭ টি মামলায় যুক্ত নিখোঁজ আসামি হাজরু শেখ উপস্থিত হয়েছে। কালিয়াচক থানার পুলিশ তাকে সেখানে ধরতে গেলে স্থানীয় দুষ্কৃতীদের সঙ্গে ঝামেলা বাধে পুলিশের। তারপরই দুষ্কৃতীদের আঘাতে এসআই বিশ্বজিৎ গুহর মাথা ফেটে যায়। এছাড়া আহত হন বেশকিছু পুলিশকর্মীও। সেই সুযোগে পালাতে সক্ষম হয় একাধিক মামলায় জড়িত আসামি হাজরু শেখ। অন্যদিকে এসআই বিশ্বজিৎ গুহ কে হাসপাতলে নিয়ে গেলে তার মাথায় ৭ টি সেলাই করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

পরবর্তীতে কালিয়াচক থানার বিশাল পুলিশবাহিনী গিয়ে মারপিটের ঘটনায় যুক্ত ৮ জন আসামিকে গ্রেপ্তার করে। তারা হল সেলিম সেখ (৪৬ বছর বয়স), বাহাদুর সেখ (৭০ বছর বয়স), আব্দুলাহি কাইফ (৩৬ বছর বয়স), রহমান শেখ (৪২ বছর বয়স), সাত্তার খান (৭১ বছর বয়স), মোস্তফা সেখ (২৪ বছর বয়স), ফিরোজ খান (৪২ বছর বয়স), মোহাম্মদ আবদুল গফার খান ( ৪২ বছর বয়স)। সবার বাড়ি মোজমপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের ইমাম জাগির এলাকায়। এই ৮ জনকে আজ মালদা জেলা আদালতে পেশ করে কালিয়াচক থানার পুলিশ।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.