নতুন বিধায়কদের শপথ পাঠ করানো নিয়ে দড়ি টানাটানি

নতুন বিধায়কদের শপথ পাঠ করানো নিয়ে দড়ি টানাটানি
নতুন বিধায়কদের শপথ পাঠ করানো নিয়ে দড়ি টানাটানি

আগামীকাল মঙ্গলবার বিধানসভা উপনির্বাচনের নব-নির্বাচিত বিধায়কদের শপথ অনুষ্ঠান। কিন্তু সেই বিধায়কদের কে শপথ পাঠ করাবেন তা নিয়ে নাটকীয় পরিস্থিতি তৈরি হয়েছিল সোমবার। এরপর শেষ পর্যন্ত ঠিক হলো নতুন বিধায়কদের শপথ পাঠ করাবেন অধ্যক্ষই। আগামীকাল বিধানসভায় বারোটা থেকে শুরু হবে শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠান।

এদিন প্রথমে রাজভবনের তরফে জানানো হয় গোসাবা, খড়দহ, দিনহাটা এবং শান্তিপুরের নব-নির্বাচিত বিধায়কদের মঙ্গলবার শপথ পাঠ করাবেন উপাধ্যক্ষ আশিস বন্দোপাধ্যায়। কিন্তু এর পরেই প্রশ্ন ওঠে এ সিদ্ধান্তকে ঘিরে। অধ্যক্ষ থাকতে কেন উপাদক্ষ শপথ পাঠ করাবেন সে বিষয়ে প্রশ্ন ওঠে বিভিন্ন মহলে। একাধিক চিঠি চালাচালি হয় রাজভবন এবং বিধানসভার পরিষদীয় দপ্তরের মধ্যে।

এর পরেই বিধানসভা পরিষদীয় দপ্তরের তরফের রাজভবনে একটি চিঠি দিয়ে জানানো হয়, “রাজ্যপাল শপথ পাঠ করাবেন না। কোথায় কিভাবে শপথ পাঠ করানো হবে তা আমরা নিজেরাই ঠিক করে নেব”। এর পরেই রাজভবন থেকে ফের চিঠি দিয়ে খবর আসে বিধানসভার অধ্যক্ষ বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়ই শপথ পাঠ করাবেন এই চার নবনির্বাচিত বিধায়ককে।

ভারতীয় সংবিধান অনুযায়ী শপথ পাঠ করান রাজ্যপাল। তবে রাজ্যপাল চাইলে অন্য কাউকে বিধায়কদের শপথ পাঠ করানোর ক্ষমতা দিতে পারেন বলেও সংবিধানে। পরেই সোমবার রাজ্যপাল নির্দেশ দেন উপাদক্ষ আসিস বন্দোপাধ্যায় নতুন বিধায়কদের শপথ পাঠ করাবেন। কিন্তু অধ্যক্ষ থাকতে উপাধ্যক্ষকে দিয়ে শপথ গ্রহণের অনুষ্ঠান আয়োজিত করা কতটা দৃষ্টিনন্দন হবে সেই নিয়ে প্রশ্ন ওঠে। সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করে জানানো হয় অধ্যক্ষই চার নতুন বিধায়ককে শপথ পাঠ করাবেন।