মালদার প্রথম করোনায় আক্রান্ত এই ব্যক্তি এখন করোনা রোগীর সেবায়

নিজস্ব প্রতিবেদনঃ মালদাঃ মালদা জেলায় প্রথম করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তি দীর্ঘ চিকিৎসার পর এখন সুস্থ। তবে সুস্থ হয়ে আরামের জীবনে ফিরে যাননি তিনি। সুস্থ হয়ে পুরাতন মালদার সরকারি কোভিড হাসপাতলে জেলার অন্যান্য করোনা আক্রান্তদের নিরন্তর সেবা দিয়ে চলেছেন। তার নাম সন্তোষ মন্ডল। বাড়ি মালদা জেলার মানিকচক থানার নারীদিয়ারা গ্রামে।

আজ থেকে মাস তিনেক আগে এই সন্তোষ মন্ডলের শরীরে প্রথম করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়েছিল। জেলা স্বাস্থ্য দপ্তরের তৎপরতায় তিনি এখন সুস্থ। কিন্তু তা বলে সুস্থ হয়ে বাড়িতে পরিবার-পরিজন নিয়ে আরামের দিন কাটাচ্ছেন না। এখন তিনি জেলার কোভিড হাসপাতালে রোজ ডিউটি করছেন। রোগীদের সেবা যত্ন করছেন। রোগীদের উৎসাহ যোগাচ্ছেন। এভাবেই তিনি করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই জারি রেখেছেন।

এই হাসপাতালে বর্তমানে মালদা জেলার এক সাংবাদিক ভর্তি রয়েছেন। তিনি জানান সন্তোষ বাবু প্রথম মালদা জেলার করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন, করোনা কে জয় করার পর তিনি আবার নিজের কাজে যুক্ত হয়েছেন, তিনি জীবনের ঝুঁকি নিয়ে করোনা আক্রান্ত রোগীদের দিন-রাত পরিষেবা দিয়ে চলেছেন। প্রত্যেক করোনা আক্রান্ত রোগীকে পরিবারের সদস্যের মতো পরিষেবা দিয়ে চলেছেন। এরকম সন্তোষ মন্ডলের মত যারা কাজ করে চলেছেন করোনা আবহে এরাই হল আসল সমাজের নায়ক।

এ প্রসঙ্গে সন্তোষ মন্ডল জানান এটা তার কর্তব্য। তিনি মালদা জেলায় প্রথম করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন। করোনার সঙ্গে লড়াই করে তিনি সুস্থ হয়েছেন। তিনি চান বাকিরাও সুস্থ হোক। বাকিদের মনে সাহস যোগাতে তিনি নিরন্তর রোগীদের পরিষেবা দিয়ে চলেছেন। আগামীতেও তাই করবেন। তিনি চান খুব তাড়াতাড়ি যেন করোনা মুক্ত হয়।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.