দলের ক্রাইসিস ম্যানেজার ছিলেন এই সুব্রতই

দলের ক্রাইসিস ম্যানেজার ছিলেন এই সুব্রতই
দলের ক্রাইসিস ম্যানেজার ছিলেন এই সুব্রতই

রাজ্যের সদ্য প্রয়াত মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায় যেমন ছিলেন একাধারে পোড় খাওয়া রাজনীতিবিদ তেমনই ছিলেন তৃণমূলের ক্রাইসিস ম্যানেজার।দল যখনই যতবার অস্বস্তিতে পড়েছে ততবার সেখান থেকে দলকে তুলে নিয়ে এসেছেন। একইসঙ্গে জনপ্রিয় ছিলেন বিরোধীদের মধ্যেও।

তৃণমূলের সাংসদ মহুয়া মৈত্র যখন সাংবাদিকদের “দু’ পয়সার প্রেস” বলে অপমান করেছিলেন ঠিক তখন ক্রাইসিস ম্যানেজমেন্ট নেমেছিলেন এই সুব্রত মুখোপাধ্যায়ই। সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে সাফ জানিয়ে দিয়েছিলেন, “এটা ওঁর ব্যক্তিগত কথা। দলের কথা নয়”।

আবার এককালীন তৃণমূলের নেতা অধুনা পূর্ব মেদিনীপুরের বিজেপি জেলা সহ–সভাপতি প্রলয় রায়কে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ফোন করেছিলেন বলে একটি অডিও ক্লিপ ভাইরাল হয়েছিল। তখনো ক্রাইসিস ম্যানেজার হিসেবে ময়দানে নামতে দেখা গিয়েছিল সুব্রত বাবুকে। দৃঢ় কণ্ঠে তিনি জানিয়েছিলেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপর আমার শ্রদ্ধা আরও বেড়ে গিয়েছে। দলের সুপ্রিমো হওয়ার সত্ত্বেও তিনি নিজের দলের প্রাক্তন কর্মীকে ফোন করেছেন এবং সেইসঙ্গে সৌজন্য দেখিয়েছেন, সেই বিষয়টি আসলে গর্বের।”

যখনই কোনও বিতর্ক খুব বেশি মাথাচাড়া দিয়েছে, তখনই এগিয়ে আসতে দেখা গিয়েছে দলের বর্ষীয়ান নেতা সুব্রত মুখোপাধ্যায়কে। আজ তাঁর অবর্তমানে সেই স্থান ভরাট হতে যে দীর্ঘ সময় লাগবে তা বলার অপেক্ষা রাখেনা।