ভারতে ব্যান টিকটক, জেনে নিন আর কোনো চিনা অ্যাপ ব্যান হলো ভারতে

ভারতে ব্যান টিকটক, জেনে নিন আর কোনো চিনা অ্যাপ ব্যান হলো ভারতে

গত কয়েকদিন ধরেই লাদাখের গালোওয়ান সীমান্তে চিন-ভারত সংঘর্ষে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়েছে। চিনা সেনার সঙ্গে আলোচনা করতে যাওয়া ২০ জন ভারতীয় সেনার শহিদ হওয়ার পর সেই উত্তেজনা ছড়িয়েছে গোটা দেশেই। যারপরই দেশেজুড়ে শুরু হয়েছিল চিনা পণ্য বয়কটের দাবী। কেন্দ্রে ক্ষমতায় থাকা বিজেপিও সেই ডাক দিয়েছিল। দেশের নানান মহল থেকেই কেন্দ্রীয় সরকারের উপর চাপ আসছিল চিনা পণ্য বয়কটের জন্য। শেষমেশ সেই চাপের কাছে নতি স্বীকার করল কেন্দ্রীয় সরকার। টিকটক, ইউসি ব্রাউজার সহ মোট ৫৯টি চাইনিজ অ্যাপ ভারতে নিষিদ্ধ করল নরেন্দ্র মোদির সরকার। কেন্দ্রের তরফে একটি বিবৃতি দিয়ে জানানো হয়েছে যে ভারতের সুরক্ষার কথা মাথায় রেখেই এই অ্যাপগুলিকে ভারতে ব্যান করা হলো।

লাদাখের ভারতীয় ইঞ্জিনিয়ার তথা লাদাখ অঞ্চলে স্টুডেন্ট এডুকেশনাল এবং কালচারাল মুভমেন্টের ফাউন্ডার ডাইরেক্টর সোনাম ওয়াংচুক ভারতে প্রথম চিনা অ্যাপ ব্যবহারের উপর নিষেধাজ্ঞার দাবী তুলেছিলেন। প্রসঙ্গত লাদাখ সীমান্তে উত্তেজনা শুরু হওয়ার পর থেকেই সরব হয়েছিলেন এই ভারতীয় ইঞ্জিনিয়ার। তিনি গত মে মাসেই দাবী তুলে বলেছিলেন যে, “চিনের সঙ্গে যুদ্ধে লড়ার দরকার নেই। বরং ভাতে মারুন চিনকে”। প্রসঙ্গত আমির খান অভিনীত ‘থ্রি ইডিয়েটস’ ছবির ফুংসুক ওয়াংড়ুর চরিত্রটি সোনামের জীবনের উপর ভিত্তি করেই তৈরি করা হয়েছিল। দীর্ঘদিন ধরেই লাদাখের শিক্ষা ব্যবস্থার উন্নতির জন্য কাজ করে চলেছেন এই বিজ্ঞনী এবং সমাজকর্মী। চিনকে চাপে ফেলতেই তিনি এই বয়কটের ডাক দেন।

একটি ভিডিয়ো মেসেজে সোনাম বলেছিলেন, “চিনকে বুলেটের মাধ্যমে জবাব দেবে ভারতীয় সেনা, আর দেশের সাধারণ মানুষ জবাব দেবেন ওয়ালেটের মাধ্যমে”। এই ভিডিয়ো বার্তাতেই চিনা পণ্য বয়কটের ডাক দিয়েছিলেন তিনি। এই ভিডিয়ো মেসেজটির পর আরও একটি ভিডিয়ো মেসেজে তিনি বলেছিলেন যে, “চিনের সমস্ত প্রকল্প এবং সমস্ত পণ্যকে আমাদের বয়কট করতে হবে ক্যানসার মনে করে। হয়ত প্রথম প্রথম আমাদের তাতে কিছুটা কষ্ট হবে, কিন্তু ধীরে ধীরে চিনা পণ্য ছাড়াই জীবন ধারণ অভ্যস্ত হয়ে যাবে আমাদের। চিনা পণ্য ব্যবহারের অভ্যেস থেকে আমরা মুক্তি পাব দু-তিন বছরের মধ্যেই। শুধু সোনামই নন এরপর দেশের বিভিন্ন মহল থেকে ডাক ওঠে চিনা পণ্য বয়কটের। তার তাতে শামিল হয়েছিলেন দেশের সাধারণ মানুষ বেশকিছু সেলিব্রেটিও।

দেখে নিন ভারতে নিষিদ্ধ হওয়া চিনা অ্যাপগুলির তালিকা

১. TikTok
২. Shareit
৩. Kwai
৪. UC Browser
৫. Baidu map
৬. Shein
৭. Clash of Kings
৮. DU battery saver
৯. Helo
১০. Likee
১১. YouCam makeup
১২. Mi Community
১৩. CM Browers
১৪. Virus Cleaner
১৫. APUS Browser
১৬. ROMWE
১৭. Club Factory
১৮. Newsdog
১৯. Beutry Plus
২০. WeChat
২১. UC News
২২. QQ Mail
২৩. Weibo
২৪. Xender
২৫. QQ Music
২৬. QQ Newsfeed
২৭. Bigo Live
২৮. SelfieCity
২৯. Mail Master
৩০. Parallel Space
৩১. Mi Video Call — Xiaomi
৩২. WeSync
৩৩. ES File Explorer
৩৪. Viva Video — QU Video Inc
৩৫. Meitu
৩৬. Vigo Video
৩৭. New Video Status
৩৮. DU Recorder
৩৯. Vault- Hide
৪০. Cache Cleaner DU App studio
৪১. DU Cleaner
৪২. DU Browser
৪৩. Hago Play With New Friends
৪৪. Cam Scanner
৪৫. Clean Master – Cheetah Mobile
৪৬. Wonder Camera
৪৭. Photo Wonder
৪৮. QQ Player
৪৯. We Meet
৫০. Sweet Selfie
৫১. Baidu Translate
৫২. Vmate
৫৩. QQ International
৫৪. QQ Security Center
৫৫. QQ Launcher
৫৬. U Video
৫৭. V fly Status Video
৫৮. Mobile Legends
৫৯. DU Privacy

আরও পড়ুনঃ  করোনা আক্রান্ত বিজেপি সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায়

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.