ভোটারদের ওপর প্রভাব দেখাচ্ছে কেন্দ্রীয় বাহিনী! কমিশনকে নালিশ তৃণমূলের

ভোটারদের ওপর প্রভাব দেখাচ্ছে কেন্দ্রীয় বাহিনী! কমিশনকে নালিশ তৃণমূলের
ভোটারদের ওপর প্রভাব দেখাচ্ছে কেন্দ্রীয় বাহিনী! কমিশনকে নালিশ তৃণমূলের

আট দফার নির্বাচনের প্রথম দফার নির্বাচন শুরু হয়েছে রাজ্যে। আজ রাজ্যের ৫ টি জেলায় ৩০ টি কেন্দ্রে চলছে ভোটগ্রহণ। এরমধ্যেই বেশ কিছু রাজনৈতিক প্রতিহিংসার খবর প্রকাশ্যে এল। কেন্দ্রীয় বাহিনীর ওপর উঠল গুরুতর অভিযোগ। বুথে নাকি বসতে দেওয়া হচ্ছে না এজেন্টদের। পাশাপাশি অবাধে যাতায়াত চলছে বহিরাগতদের। এই নিয়ে কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে নির্বাচন কমিশনের কাছে অভিযোগ দায়ের করল তৃণমূল কংগ্রেস।

আজ তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে নির্বাচন কমিশনে আসেন একটি দল। সেই দলে ছিলেন সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়, ডেরেক ও’ব্রায়েন, প্রতিমা মন্ডল এবং মালা রায়। নির্বাচন কমিশনকে তৃণমূলের নালিশ, “ভোটারদের প্রভাবিত করছে সিআরপিএফ। চার জেলার ১৫টি বিধানসভা কেন্দ্রে প্রভাব তৈরির চেষ্টা চালানো হচ্ছে।” পুরুলিয়া, বাঁকুড়া, পশ্চিম মেদিনীপুর, ঝাড়গ্রাম এই চারটি জেলা নিয়েই উঠল সেই অভিযোগ। কমিশন সূত্রে জানানো হয়েছে, এই অভিযোগ আইটি সেল খতিয়ে দেখছে।

পাশাপাশি নির্বাচন কমিশনের কাছে তৃণমূল এই আবেদনও রাখে যে, চলতি বছরের ইলেকশনের জন্য পোলিং এজেন্ট নিয়ে যে নির্দেশিকা জারি করেছে নির্বাচন কমিশন, প্রথম দফার ভোট শেষ হয়ে যাওয়ার পর দ্বিতীয় দফার ভোট থেকে যেন তা বাতিল করা হয়। প্রসঙ্গত, নির্বাচন কমিশন নির্দেশিকা দিয়েছিলেন, যদি কোনো রাজনৈতিক দল মনে করে যে নির্দিষ্ট কোনও কেন্দ্রে তাদের সংগঠন দুর্বল। সেখানে তারা অন্য যে কোনও জায়গা থেকে এজেন্ট নিয়ে যেতে পারে।

কমিশনের এই নির্দেশিকার পরিপ্রেক্ষিতেই তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে তা বাতিলের আবেদন করা হয়েছে। নির্বাচন কমিশন তাঁদের আশ্বস্ত করেছেন যে, আজকের মধ্যেই এই বিষয়টি দিল্লিতে জাতীয় নির্বাচন কমিশনের দপ্তরে পাঠানো হবে এবং তারপর যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.