‘সিপিএমকে ভোট দিলে হাত কেটে নেব’! প্রকাশ্য দিবালোকে, নানুরে তৃণমূল নেতার হুমকি! রইল ভিডিও

'সিপিএমকে ভোট দিলে হাত কেটে নেব'! প্রকাশ্য দিবালোকে, নানুরে তৃণমূল নেতার হুমকি! রইল ভিডিও
'সিপিএমকে ভোট দিলে হাত কেটে নেব'! প্রকাশ্য দিবালোকে, নানুরে তৃণমূল নেতার হুমকি! রইল ভিডিও

বংনিউজ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ একুশের বাংলার বিধানসভা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে জায়গায় জায়গায় পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে উঠছে। আট দফার ভোটে যত সময় এগোচ্ছে, ততোই পরিস্থিতি অগ্নিগর্ভ হয়ে উঠছে। বাড়ছে রাজনৈতিক হিংসার এবং সংঘর্ষের ঘটনা। চলছে রাজনৈতিক দলগুলির পরস্পরকে হুমকির ঘটনাও।

এই পরিস্থিতি থেকে বাদ পড়েনি অনুব্রত গড়ও। বুধবার বীরভূমের নানুরে সংযুক্ত মোর্চার প্রার্থীর প্রচার ঘিরে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। সংযুক্ত মোর্চার প্রার্থী শ্যামলী প্রধানকে প্রচারে বাধা দেওয়ার অভিযোগ ওঠে তৃণমূলের বিরুদ্ধে। সিপিএমকে ভোট দিলে হাত কেটে নেওয়ার হুমকি দেন স্থানীয় তৃণমূল নেতা নুরমান শেখ। সংযুক্ত মোর্চার প্রার্থীর সামনেই তিনি এই হুমকি দেন বলে অভিযোগ।

উল্লেখ্য, অনুব্রত গড় বীরভূমে ভোট রয়েছে অষ্টম দফায় অর্থাৎ ২৯ এপ্রিল। তবে, তার অনেক আগে থেকেই এখানকার একাধিক এলাকা থেকে উঠে আসছেন আনা অশান্তির ছবি। বাম দলীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রতিদিনের মতো গত বুধবারও নানুরের বিদায়ী বিধায়ক তথা সিপিআইএম প্রার্থী শ্যামলী প্রধান নির্বাচনী প্রচারে বের হন। তিনি নির্বাচনী প্রচারে নানুর বিধানসভা এলাকার আগত্তর গ্রামে প্রবেশ করলে, সেখানে প্রথমেই বিক্ষোভের মুখে পড়েন। মূলত তাঁকে ঘিরে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন এলাকার তৃণমূল কর্মী সমর্থক এবং নেতারা। এরপরেই প্রকাশ্যে হুমকি দেওয়া হয় হাত কেটে নেওয়ার।

এই ঘটনা প্রসঙ্গে পরে স্থানীয় পঞ্চায়েত সদস্যার স্বামী তথা তৃণমূল নেতা নুরমান শেখ সাফাইয়ের সুরে জানিয়েছেন যে, বহিরাগতদের এনে ভোট করানোর হুমকি দিয়েছিলেন সিপিএমের এক নেতা। আর বহিরাগতদের আটকাতেই মুখ ফস্কে তিনি এই হুমকি দিয়ে ফেলেছেন।

ঘটনাকে কেন্দ্র করে ইতিমধ্যেই জেলার রাজনীতিতে তোলপাড় শুরু হয়ে গেছে। প্রশ্ন উঠছে ইলেকশন কমিশনের প্রতিনিধিদের সামনেই এইভাবে কী করে একজন হুমকি দিতে পারেন একজন প্রার্থীকে। জেলার রাজনীতিবিদরা নির্বাচন কমিশনের ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন এই ঘটনার পর। সিপিআইএম সূত্রে জানা গিয়েছে, এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে তাঁরা কমিশনে অভিযোগ জানাবেন। আর অভিযোগ পেয়ে কমিশন কী পদক্ষেপ গ্রহণ করে, তার দিকেই তাকিয়ে সকলে।

ইতিমধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছে এই হুমকির ভিডিও। যা ঘিরে বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে। তৃণমূল নেতার আচরণের প্রতিবাদে নিন্দার ঝড় উঠেছে বিভিন্ন মহল থেকে।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.