‘নির্বাচন কমিশনকে দিয়ে ক্রমাগত অফিসারদের বদলি করাচ্ছেন’, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে আক্রমণ মমতার

'নির্বাচন কমিশনকে দিয়ে ক্রমাগত অফিসারদের বদলি করাচ্ছেন', কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে আক্রমণ মমতার
'নির্বাচন কমিশনকে দিয়ে ক্রমাগত অফিসারদের বদলি করাচ্ছেন', কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে আক্রমণ মমতার

বংনিউজ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ একুশের বাংলার নির্বাচনে ভোট প্রচারে বিজেপি এবং তৃণমূল ক্রমাগত একে অপরকে নজিরবিহীনভাবে আক্রমণ করেই চলেছে। সঙ্গে নির্বাচন কমিশনকে ঘিরেও নানা অভিযোগ রয়েছে শাসকদল তৃণমূলের শুরু থেকেই। তাঁদের পক্ষ থেকে এও অভিযোগ করা হয়েছে যে, নির্বাচন কমিশন কেন্দ্রের বিজেপির সরকারের কথা মতো চলছে।

এদিন হুগলির খানাকুলে জনসভায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ফের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে আক্রমণ করেছেন। তিনি খানাকুলের জনসভায় অভিযোগ করেন যে, নির্বাচন কমিশনকে দিয়ে নির্বাচনের মুখে ক্রমাগত অফিসারদের বদলি করাচ্ছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। তিনি আরও অভিযোগ করেছেন যে, বদলি করা অফিসারদের জায়গায় আনা হচ্ছে বিজেপির দালালদের।

তৃতীয় দফার ভোটের আগে এদিন খানাকুলের নির্বাচনী জনসভায় তৃণমূল নেত্রী বলেন, ‘এক শ্রেণির অফিসার বিজেপির দালালি করছে। আমিও দিল্লির পথই অনুসরণ করব।’ বাংলার মুখ্যমন্ত্রী বলেন যে, ‘দিল্লিতে বাংলায় ১৩৫ জন অফিসারকে সরিয়ে দিয়েছিল। আমরাই তাঁদের পাশে দাঁড়িয়েছিলাম। আমি রাজ্যের অফিসারদেরও ভালোবাসি, দিল্লির অফিসারদেরও ভালোবাসি।’

উল্লেখ্য, এর আগেও নির্বাচনী প্রচারে গিয়ে এই ধরনের অভিযোগ করেছিলেন তৃণমূল নেত্রী। কোচবিহারের তুফানগঞ্জের জনসভাতেও তিনি এই একই অভিযোগ করেছিলেন। বলেছিলেন, ‘প্রতিদিন পুলিশের অফিসারদের বদল করছে কমিশন।’ অমিত শাহ নির্বাচন কমিশন চালাছেন বলেও অভিযোগ করেন তৃণমূল নেত্রী। তিনি এ প্রসঙ্গে বলেন যে, ‘ওনাকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক থেকে সরিয়ে কমিশনের চেয়ারম্যান করে দেওয়া হোক।’

রাজ্যে নির্বাচন ঘোষণা হওয়ার পর থেকেই রাজ্যে পুলিশে বদল লেগেই রয়েছে। এই বদলের প্রক্রিয়া থেকে বাদ যাননি ডিজি, এডিজি(আইনশৃঙ্খলা)-র মতো শীর্ষ পদাধিকারীরাও। এদিকে তৃতীয় দফার ভোটের আগে গতকালই আলিপুরদুয়ারের পুলিশ সুপার অমিতাভ মাইতি, ডায়মন্ড হারবারের (শিল্পাঞ্চল) ডেপুটি পুলিস কমিশনার মিঠুন দে ও চন্দননগরের ডেপুটি পুলিস কমিশনার তথাগত বসুকে সরিয়ে দিয়েছে নির্বাচন কমিশন। এই ঘটনায় ক্ষুব্ধ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর তাই ফের একবার খানাকুলের জনসভা থেকে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে আক্রমণ করলেন তৃণমূল নেত্রী।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.