করোনা গ্রাফে ওঠানামা অব্যাহত! গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে অনেকটাই কমল আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা

করোনা গ্রাফে ওঠানামা অব্যাহত! গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে অনেকটাই কমল আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা
করোনা গ্রাফে ওঠানামা অব্যাহত! গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে অনেকটাই কমল আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা / প্রতীকী ছবি

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ রাজ্যে করোনার দৈনিক সংক্রমণে এবং মৃত্যুর সংখ্যায় ওঠানামা অব্যাহত। উৎসবের মরশুমে রাজ্যের করোনা গ্রাফ ক্রমশ ঊর্ধ্বমুখী ছিল। পাশাপাশি নতুন করে চিন্তা বাড়িয়েছে কলকাতা এবং উত্তর ২৪ পরগণা জেলার বাড়তে থাকা সংক্রমণ। রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় ফের লকডাউন পরিস্থিতি ফিরছে। প্রতিদিনই একটু একটু করে বেড়ে চলেছে রাজ্যে করোনার দৈনিক সংক্রমণ। কখন আবার সামান্য কমছে। তবে, গত ২৪ ঘণ্টায় ফের কমল রাজ্যে করোনার দৈনিক সংক্রমণ। কমল মৃত্যুর সংখ্যাও।

রাজ্য স্বাস্থ্য দফতরের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৭৮২ জন। গতকালের থেকে সংক্রমণ কম। গতকাল রাজ্যে করোনার দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৮৭৫ জন। স্বাস্থ্য দফতরের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, সংক্রমণের নিরিখে এদিনও প্রথম স্থানে রয়েছে কলকাতা। গত ২৪ ঘণ্টায় এই জেলায় নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ২১৬ জন। গতকালের থেকে সংক্রমণ সামান্য কম। গতকাল কলকাতার দৈনিক সংক্রমণ ছিল ২৩৮ জন। সংক্রমণের নিরিখে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে উত্তর ২৪ পরগণা জেলা। গত ২৪ ঘণ্টায় এই জেলায় নতুন করে সংক্রমিত হয়েছেন ১২৩ জন। এই জেলাতেও সংক্রমণ গতকালের থেকে কম। গতকালই এই জেলাতে আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ১৪০ জন। এছাড়া বাকি সব জেলা থেকেই গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করোনা আক্রান্তের খবর এসেছে। এই মুহূর্তে রাজ্যে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে, ১৬ লক্ষ ৪ হাজার ১৯৩ জন।

স্বাস্থ্য দফতরের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে করোনায় প্রাণ হারিয়েছেন ৫ জন। গতকাল রাজ্যে করোনায় মৃত্যু হয়েছিল ৭ জনের। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় দুই ২৪ পরগণা, কলকাতা, নদীয়া এবং পশ্চিম বর্ধমান জেলায় এক জন করে প্রাণ হারিয়েছেন। রাজ্যে করোনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ১৯ হাজার ৩১৯ জন।

এদিকে, গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে করোনাকে পরাস্ত করে সুস্থ হয়ে ঘরে ফিরেছেন ৭৯২ জন। দৈনিক আক্রান্তের তুলনায় দৈনিক সুস্থতার সংখ্যা সামান্য বেশি। এখনও পর্যন্ত রাজ্যে করোনাকে পরাস্ত করে সুস্থ হয়ে ঘরে ফিরেছেন মোট ১৫ লক্ষ ৭৭ হাজার ৬০৯ জন। এই মুহূর্তে রাজ্যে মোট চিকিৎসাধীন রোগীর সংখ্যা ৮ হাজার ৪৭ জন। করোনার তৃতীয় ঢেউ রুখতে কোভিড পরীক্ষায় জোর দেওয়া হচ্ছে রাজ্যে।