বাংলা থেকে বুলবুল চলে যেতেই সমুদ্রে স্নানে নেমে মৃত্যু হল যুবকের

নিজস্ব প্রতিবেদনঃ মেদিনীপুরঃ বাংলায় ঘূর্ণিঝড় বুলবুল আসার জন্য দু’দিন ধরে দীঘার সমুদ্র সৈকতে পর্যটকদের স্নানে নামার নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল পুলিশ প্রশাসন। বাংলা থেকে সেই ঘূর্ণিঝড় সরে জেতেই রবিবার সেই নিষেধাজ্ঞা তুলে দেয় প্রশাসন। এই নিষেধাজ্ঞা উঠে যাওয়ার পরেই সমূদ্রে স্নান করতে গিয়ে জলে ডুবে মৃত্যু হল সঞ্জয় নস্কর (৪৫) এক ব‍্যক্তির। তার বাড়ি দক্ষিন চব্বিশ পরগনার পাটুলিয়া থানার বাঘাযতীন গ্রামে।

জানা গেছে , এদিন দুপুরে মদ‍্যপ অবস্থায় স্নান করতে গিয়ে জলে ডুবে যাচ্ছিলেন। ঘটনাটি দেখতে পেয়ে বন্ধুরা চিৎকার করে ওঠে । সেই সময় ঘটনাটি কর্তব্যরত নুলিয়ারা দেখতে পেয়ে জলে ঝাঁপিয়ে তাঁকে উদ্ধার করে দিঘা স্টেট জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, শনিবার সকালে আটজন বন্ধু মিলে উত্তর ২৪ পরগনার থেকে দিঘায় বেড়াতে এসে দিঘার একটি বেসরকারী হোটেলে এসে ওঠে। বুলবুল আসার কারনে সমুদ্রে স্নানে নিষেধাজ্ঞা ছিল । তারপর বুলবুল বাংলা ছেড়ে চলে জেতেই রবিবার দুপুরে বন্ধুরা মিলে সমুদ্রে স্নান করতে নামে। তারপর বেশকিছুক্ষন স্নান করে দেখতে পায় তাদের এক বন্ধু জলে ডুবে যাচ্ছে ।তার পর তারা চিকিৎকার শুরু করে। তারপর নুলিয়ারা গিয়ে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষণা করে ।

আরও পড়ুনঃ  ডাক্তার দেখানোর অজুহাতে কাকিমার সাথে পলাতক ভাইপো। উদ্ধারের পর জানা গেল আসল কারণ!..

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.