কুয়াশার জন্য ট্রেন চলছে দেরিতে, ভাইয়ের এক টুইটেই ম্যাজিক! পরীক্ষার্থীকে ঠিক সময়ে গন্তব্যে পৌঁছে দিল রেল

কুয়াশার জন্য ট্রেন চলছে দেরিতে, ভাইয়ের এক টুইটেই ম্যাজিক! পরীক্ষার্থীকে ঠিক সময়ে গন্তব্যে পৌঁছে দিল রেল
কুয়াশার জন্য ট্রেন চলছে দেরিতে, ভাইয়ের এক টুইটেই ম্যাজিক! পরীক্ষার্থীকে ঠিক সময়ে গন্তব্যে পৌঁছে দিল রেল / ফাইল ছবি

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ ঘন কুয়াশা, যার জন্য ট্রেন চলছে ধীর গতিতে, তাই স্বাভাবিকভাবেই ট্রেন নির্দিষ্ট সময়ের বদলে চলছে দেরিতে। কিন্তু সেকথা তো আর পরীক্ষা শুনবে না। পরীক্ষা তার নির্দিষ্ট সময়েই শুরু হবে।

উত্তরপ্রদেশের মৌ জেলার এক পরীক্ষার্থী এই সমস্যা অনুধাবন করতে পেরেই, দেরি না করে তাঁর ভাইকে ফোন করলেন। এরপর ভাই সঙ্গে সঙ্গে সোশ্যাল মিডিয়াকে হাতিয়ার করে, বোনের অ্যাডমিট কার্ড সহ একটি টুইট করেন। সেই টুইটে আবার ট্যাগ করেন রেলকে। ব্যস এতেই একেবারে মোক্ষম কাজ হল। এক নিমেষে সমস্যার সমাধান।

বৃহস্পতিবার ছাপরা-বারাণসী ইন্টারসিটি স্পেশাল ট্রেনে চড়ে বেসিক টিচার্স সার্টিফিকেট(DLED) পরীক্ষা দিতে যাচ্ছিলেন উত্তরপ্রদেশের মৌ জেলার বাসীন্দা নাজিয়া তাবাসসুম। যে ট্রেনে নাজিয়ার যাওয়ার কথা ছিল, সেটির পৌঁছানর কথা ছিল সকাল ৬টা ২৫ মিনিটে। কিন্তু কুশায়ার জন্য ট্রেনটি সকাল ৮টা ২৫ মিনিটেও বারাণসী না পৌঁছনোয়, ফোনে ভাই আনোয়ার জামালকে সমস্যার কথা জানান নাজিয়া।

বোনের ওই ফোন পেয়েই, নাজিয়ার অ্যাডমিট কার্ড সহ একটি টুইট করেন আনোয়ার। লেখেন, ‘ছাপরা-বারাণসী স্পেশাল ২ ঘণ্টা ২৭ মিনিট লেটে চলছে। বেলা ১২ টার সময় বারাণসীতে আমার বোনের পরীক্ষা রয়েছে। দয়া করে আমার বোনকে পরীক্ষাকেন্দ্র পৌঁছতে সাহায্য করুন।’ ওই টুইটে আনোয়ার ট্যাগ করেন ভারতীয় রেলকে।

আনোয়ারের ওই একটি টুইটই ম্যাজিকের মতো কাজ করে। মুহূর্তের মধ্যেই সমস্যার সমাধান করে দেয় তাঁর বোনের। এই টুইট দেখার পর রেলের তরফে আনোয়ারের সঙ্গে যোগাযোগ করে আশ্বাস দেওয়া হয় যে, তাঁর বোন তাবাসসুম ঠিক সময়েই বারাণসী পৌঁছবে। প্রায় আড়াই ঘণ্টা লেটে চলা ট্রেনটিকে সর্বোচ্চ গতিতে চালিয়ে বারাণসী পৌঁছে দেওয়া হয় ১১টার আগেই। রেলের এই তৎপরতায় চমকে গিয়েছেন আনোয়ার নিজেই।

সংবাদমাধ্যমে তিনি জানিয়েছেন যে, একটি টুইট করে রেলের সাহায্য চেয়েছিলাম। ১০ মিনিটের মধ্যে বোনের মোবাইলে ফোন করা হয় রেলের তরফ থেকে। তাঁকে ঠিক সময়ে বারাণসী পৌঁছে দেওয়ার আশ্বাস দেওয়া হয়। মৌ স্টেশনে ট্রেনটি এসেছিল সকাল ৯টা ১৮ মিনিটে। তা বারাণসী পৌঁছে যায় ১০.৫৭ মিনিটে। বোনকে ঠিক সময়ে বারাণসী পৌঁছে দেওয়ার জন্য রেলকে টুইট করে ধন্যবাদ জানাতে ভোলেননি আনোয়ার।

সেই টুইটের উত্তরে পাল্টা টুইট করে কেন্দ্রীয় রেলমন্ত্রী পীয়ূষ গোয়েল লেখেন, ‘আপনার বোনকে সাহায্য করতে পেরে আমরা খুশি। তিনি ঠিক সময়ে পরীক্ষা কেন্দ্রে পৌঁছে গিয়েছে। যাত্রীদের সুবিধের জন্য রেল সব সময়েই সাহায্য করতে প্রস্তুত।’

আরো পড়ুনঃ   সুখবর! মাসের শুরুতেই নয়া অফার নিয়ে হাজির Vi, কি সুবিধা পাবেন রইলো বিস্তারিত