দিন দশেকের মধ্যেই শুরু হতে পারে এই ঐতিহ্যশালী প্রাচীন পরিষেবা

দিন দশেকের মধ্যেই শুরু হতে পারে এই ঐতিহ্যশালী প্রাচীন পরিষেবা
দিন দশেকের মধ্যেই শুরু হতে পারে এই ঐতিহ্যশালী প্রাচীন পরিষেবা

নিজস্ব সংবাদদাতাঃ ফের সচল হতে চলেছে শ্যামবাজার-এসপ্ল্যানেড রুটের ট্রাম । আগামী দিন দশেকের মধ্যেই শুরু হতে পারে এই ঐতিহ্যশালী প্রাচীন পরিষেবা। এমনটাই খবর রাজ্য পরিবহন দফতর সূত্রে।

কলকাতার মোট ছটি রুটে বর্তমানে ট্রাম চলাচল করে। এর মধ্যে চারটি রুটে ইতিমধ্যেই সচল হয়েছে পরিষেবা। এরপর শ্যামবাজার-এসপ্ল্যানেড রুটের ট্রাম চলাচল পুনরায় সচল হতে চলেছে । আগামী দিন দশেকের মধ্যেই এই পরিষেবা শুরু হতে পারে। আমফানের পর টালিগঞ্জ-বালিগঞ্জ, রাজাবাজার-হাওড়া ব্রিজ, গড়িয়াহাট-এসপ্ল্যানেড ও হাওড়া-শ্যামবাজার রুটে বর্তমানে ট্রাম চলছে। ইতিমধ্যেই যে সব রুটের ট্রাম চলাচল শুরু করেছে সেইসব ট্রাম ডিপোয় নিয়মিত জীবাণুমুক্ত করা হচ্ছে।

কলকাতার অন্যতম প্রাচীন পরিবহন মাধ্যম ট্রাম। তবে, বর্তমানের ব্যস্ত দুনিয়ায় বেশিরভাগ মানুষই ট্রাম ছেড়ে অন্যান্য যানকেই বেছে নিতে চান। কিন্তু তবুও এখনও কলকাতার রাস্তায় ছুটে চলেছে ট্রাম। যদিও ঘূর্ণিঝড় আম ফানের এর জেরে বৈদ্যুতিক তার ছিঁড়ে গিয়েছিল । যার জেরে এক প্রকার অচল হয়ে গিয়েছিল ট্রাম চলাচল। তবে ফের সচল হতে চলেছে এই পরিষেবা ।

অন্যদিকে পুজোর আগেই চালু হতে পারে চক্ররেল। শহরবাসীর যাতায়াত মসৃণ করতে পুজোর আগেই চক্ররেল চালু করতে চায় রাজ্য।সূত্র মারফত খবর এমনটাই। ইতিমধ্যেই এই বিষয়ে আলোচনা শুরু হয়েও গিয়েছে রাজ্য ও রেল কর্তৃপক্ষের মধ্যে। শিয়ালদহ উত্তর ডিভিশান সূত্রে খবর, এই বিভাগের বেশ কিছু ট্রেন শিয়ালদার পরিবর্তে দমদম থেকে চক্ররেলের লাইন ধরে প্রিন্সেপঘাট বা মাঝেরহাট পর্যন্ত চালানো হবে। এতে সংক্রমণ কতটা নিয়ন্ত্রনে থাকছে বা কতটা ভিড় এড়ানো সম্ভব হচ্ছে সেই সব বিষয় খতিয়ে দেখা হবে। যদি সব কিছু ঠিকঠাক থাকে তাহলে আস্তে আস্তে শিয়ালদা ও হাওড়াতে লোকাল ট্রেন পরিষেবা চালু করতে পারে পূর্ব রেল কর্তৃপক্ষ।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.