মমতার নির্দেশে উত্তরপ্রদেশ যাচ্ছে তৃণমূলের প্রতিনিধিদল

মমতার নির্দেশে উত্তরপ্রদেশ যাচ্ছে তৃণমূলের প্রতিনিধিদল
মমতার নির্দেশে উত্তরপ্রদেশ যাচ্ছে তৃণমূলের প্রতিনিধিদল

উত্তরপ্রদেশে লখিমপুর খেরি অঞ্চলে টিকুনিয়ায় কৃষকদের মিছিলের মধ্যে গাড়ি চালিয়ে দু’জন কৃষককে হত্যা করেছে বিজেপি নেতা তথা স্বরাষ্ট্র দফতরের প্রতিমন্ত্রী অজয় মিশ্রের ছেলে আশিস মিশ্র। এই ঘটনায় এবার উত্তরপ্রদেশ যাচ্ছে তৃণমূলের পাঁচ সদস্যের প্রতিনিধি দল। রবিবার রাতেই টুইট করে সেই কথা জানিয়েছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

কেন্দ্রের আনা তিন কালা কৃষি আইনের বিরুদ্ধে এমনিতেই আন্দোলন চালাচ্ছে কৃষকেরা। যার আঁচ পড়েছে উত্তরপ্রদেশেই।প্রশাসনিক সূত্রের খবর, এদিন সকাল থেকেই বিক্ষোভ দেখাচ্ছিলেন কৃষকরা কেন্দ্রের নয়া কেন্দ্রীয় কৃষি আইনের বিরোধিতায়। রবিবার সকালে উপমুখ্যমন্ত্রী কেশব প্রসাদ মৌর্য ও কেন্দ্রীয় অজয় কুমার মিশ্রের আসা নিয়ে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন কৃষকরা।তখনই আন্দোলনরত কৃষকদের উপর দিয়ে গাড়ি চালিয়ে দেন। জানা গিয়েছে আটজন কৃষকের মৃত্যু হয়েছে এই ঘটনায়।

এরপরেই গোটা ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি টুইট করে লেখেন, “লখিমপুর খেরিতে যে পাশবিক অত্যাচার কৃষকদের উপর হয়েছে তার তীব্র প্রতিবাদ জানাই। বিজেপির দেশের কৃষকদের প্রতি আচরণ দেখে আমি মর্মাহত। তৃণমূলের পাঁচ সাংসদ দলের প্রতিনিধিরা মৃত কৃষকদের বাড়ি যাবে দেখা করতে। কৃষকদের পাশে সবসময় রয়েছি আমরা।”জানা গিয়েছে, এদিন লখিমপুর খেরি যাচ্ছেন তৃণমূলের কাকলী ঘোষ দস্তিদার, দোলা সেন, প্রতিমা মণ্ডল, আবীর রঞ্জন এবং সুস্মিতা দেব।

যদিও তৃণমূলের উত্তরপ্রদেশ যাওয়া নিয়ে পাল্টা কটাক্ষ করেছেন বিজেপির সর্বভারতীয় সহ সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তিনি এদিন সকালে বলেন, “বাংলায় সর্বনাশ করে দিয়েছেন বাকি জায়গায় করুন”। একইসঙ্গে, এই ঘটনার প্রেক্ষিতে দিলীপ ঘোষ জানান, ” ওখানে কোনো রকম বিতর্কিত ব্যাপার হয়েছে। ওখানকার লোকেরা বলতে পারবেন কি হয়েছে।যেভাবে জিনিসটাকে ব্যাখ্যা করা হচ্ছে, সত্যকে ঠিক সামনে আনা হচ্ছে না।”