১৫ সেপ্টেম্বর আগরতলায় অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের পদযাত্রায় নিষেধাজ্ঞা ত্রিপুরা পুলিশের!

১৫ সেপ্টেম্বর আগরতলায় অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের পদযাত্রায় নিষেধাজ্ঞা ত্রিপুরা পুলিশের!
১৫ সেপ্টেম্বর আগরতলায় অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের পদযাত্রায় নিষেধাজ্ঞা ত্রিপুরা পুলিশের!

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ চলতি মাসের ১৫ তারিখ ত্রিপুরার আগরতলায় তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের পদযাত্রা ছিল। সেই পদযাত্রায় নিষেধাজ্ঞা জারি করল ত্রিপুরা পুলিশ। প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে যে, ওই একই দিনে একই রুটে, একই সময়ে অন্য একটি দলের কর্মসূচি রয়েছে। তাই নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। পাশাপাশি ত্রিপুরা পুলিশের পক্ষ থেকে হুঁশিয়ারির সুরে এও বলা হয়েছে যে, এই নির্দেশ অমান্য করলে, কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

উল্লেখ্য, আগামী বুধবার, ১৫ সেপ্টেম্বর দুপুরে আগরতলায় পদযাত্রা করার কথা ছিল তৃণমূল নেতা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের। এই পদযাত্রায় তৃণমূলের প্রথম সারির নেতাদের পাশাপাশি শিল্প, ক্রীড়া, সংস্কৃতি জগতের বহু মানুষ অংশ নেবেন বলেও জানানো হয়েছিল তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে।

এদিকে, ত্রিপুরা পুলিশের এই নিষেধাজ্ঞা জারির তীব্র সমালোচনা করেছে তৃণমূল কংগ্রেস। তৃণমূলের বিধায়ক তাপস রায়, বিজেপিকে নিশানা করে বলেন যে, ‘অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে ভয় পাচ্ছে। বাংলাতেও ভয় পাচ্ছে, ত্রিপুরাতেও ভয় পাচ্ছে। সর্বভারতীয় স্তরেও ভয় পাচ্ছে। ওরা একদলীয় রাজনীতিতে বিশ্বাসী। যেমন বাংলার মানুষ ঠিক করেছিলেন। তেমনই ত্রিপুরার মানুষও ঠিক করবেন।’ আর এক তৃণমূল সাংসদ সুখেন্দুশেখর রায় বলেন, ‘প্রতিদিন এখানে কোভিডবিধি না মেনে কর্মসূচি করছে বিজেপি। ওদের মুখে বিধিভঙ্গের কথা মানায় না।’

এছাড়াও সোমবার এই মিছিল বাতিল প্রসঙ্গে টুইট করেছেন কুণাল ঘোষ। তিনি বলেন, ‘অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে ভয় পেয়ে ১৫/৯ পদযাত্রা ঠেকাতে মরিয়া বিজেপি। পুলিশ জানাল ওই দিন ওই রুটে অন্য দল কর্মসূচি করবে। এখন শুনলাম ১৪/১৫ বিএমএস-কে দিয়ে রেল ধর্মঘট করাচ্ছে বিজেপি ধর্মনগরে। যেখান থেকে ট্রেন ছাড়ে। বিজেপি ভয় পেয়েছে। তৃণমূল কিছুক্ষণ পর পরবর্তী জানাবে।’

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, বাংলায় তৃতীয়বারের জন্য ক্ষমতা দখল করার পর তৃণমূল কংগ্রেস জাতীয় স্তরে তাঁদের সংগঠন বাড়াতে এবং মজবুত করতে ঝাঁপিয়ে পড়েছে। লক্ষ্য ২০২৪-এর লোকসভা নির্বাচনে বিজেপিকে কেন্দ্রের ক্ষমতা থেকে সরানো। তবে, তার আগে যেসব রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচন রয়েছে সেখানেও নিজেদের সংগঠন মজবুত করতে চাইছে তৃণমূল। সেই লক্ষ্যে এই মুহূর্তে তৃণমূল কংগ্রেসের পাখির চোখ ত্রিপুরা। এই রাজ্যে নিজেদের সংগঠন আরও মজবুত করতে এবং ত্রিপুরার আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপিশাসিত বিপ্লব দেবের সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করার লক্ষ্যে ইতিমধ্যেই মাঠে নেমে পড়েছে তৃণমূল কংগ্রেস। প্রায়ই সেখানে যাচ্ছেন রাজ্যের নেতা-নেত্রীরা। এই রাজ্যে হামলার শিকার হয়েছিলেন তৃণমূলের একাধিক নেতা। কিন্তু, থেমে যেতে নারাজ তৃণমূল। খোদ তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ও হামলার শিকার হয়েছেন এর আগে ত্রিপুরায় গিয়ে।

তবে, হাল ছাড়তে নারাজ তৃণমূল কংগ্রেস। সেখানে ২১ জুলাই, খেলা হবে দিবস, রাখিবন্ধন উৎসব পালন করেছে রাজ্যের শাসক দল। ত্রিপুরায় দলীয় কার্যালয় তৈরি করতেও উদ্যোগী হয়েছে এরাজ্যের শাসকদল। আর এবার ছিল অভিষেকের পদযাত্রা। তবে, তাও বাতিল করা হল। এবার এটাই দেখার যে, তৃণমূলের পরবর্তী পদক্ষেপ কী হয়?