WT20: আফ্রিদির ‘নো বল’-এ আউট রাহুল! ভারত-পাক ম্যাচ ঘিরে সোশ্যাল মিডিয়ায় শুরু বিতর্ক

WT20: আফ্রিদির 'নো বল'-এ আউট রাহুল! ভারত-পাক ম্যাচ ঘিরে সোশ্যাল মিডিয়ায় শুরু বিতর্ক / ছবি সৌজন্যে : ট্যুইটার
WT20: আফ্রিদির 'নো বল'-এ আউট রাহুল! ভারত-পাক ম্যাচ ঘিরে সোশ্যাল মিডিয়ায় শুরু বিতর্ক / ছবি সৌজন্যে : ট্যুইটার

ভারতীয় ক্রিকেটের অন্যতম হতাশার দিন ছিল রবিবার। ওয়ান-ডে বা টি-২০, বিশ্বকাপের ইতিহাসে এই প্রথম পাকিস্থানের কাছে হারল ভারতীয় দল। আবার ১০ উইকেটে! ভারতীয় ক্রিকেটপ্রেমীদের কাছে যা অত্যন্ত লজ্জার! পাকিস্থানের বোলিংয়ের বিরুদ্ধে এদিন যেন যেচে আত্মসমর্পণ করল ভারতের ব্যাটিং ব্রিগেড। বিশেষ করে তরুণ পাক পেসার শাহিন শাহ আফ্রিদির সামনে তো দাঁড়াতেই পারলেন না রোহিত, রাহুলরা। ফলস্বরূপ বিশ্বকাপ অভিযানের শুরুতেই হারের মুখ দেখতে হল ভারতকে।

তবে এসবের মাঝেই ভারত-পাক ম্যাচ ঘিরে সঙ্গে সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে শুরু হল বিতর্ক। ভারতীয় তারকা ওপেনার কে এল রাহুলকে নাকি ‘নো বল’ করে আউট করেছেন আফ্রিদি। এ নিয়ে নেটদুনিয়া জুড়ে আম্পায়ারিংকে কাঠগড়ায় তুললেন নেটিজেনরা। তাঁদের দাবি, আফ্রিদি যে বলে রাহুলকে বোল্ড করেছিলেন, সেটা নাকি নো বল ছিল। বল করার মুহূর্তে তাঁর পা দাগের বাইরে বেরিয়ে যায়। তবু বলটিকে ‘নো বল’ না ডেকে রাহুলকে আউট দেওয়া হয়। এই বিষয়ক একটি ছবিও বেশ ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে। তারপরই এদিনের ম্যাচের আম্পায়ারিং নিয়ে ক্ষুদ্ধ হয়ে ওঠেন নেটিজেনরা।

আসলে ঠিক কী ঘটেছিল? রবিবাসরীয় ম্যাচে টস জিতে ভারতকে ব্যাটিং করতে পাঠান পাকিস্তান ক্যাপ্টেন বাবর আজম। এদিন ভারতের দুই ওপেনিং জুটি রোহিত শর্মা ও কেএল রাহুলকে নিয়ে আলাদাই প্রত্যাশা ছিল ভারতীয় সমর্থকদের। আশা ছিল, দু’জনেই দুর্দান্ত ইনিংস খেলে ওপেনিং পার্টনারশিপকে মজবুত করে তুলবেন। কিন্তু আফ্রিদির হাতে নিজের প্রথম বলেই এলবিডব্লিউ আউট হয়ে ফিরে যেতে বাধ্য হন রোহিত। এদিকে ২.১ ওভারে আফ্রিদিরই বলে বোল্ড হয়ে যান কেএল রাহুলও।

১৪১ কিলোমিটার গতিবেগের ওই বল বুঝতে পারেননি রাহুল। আফ্রিদির ডেলিভারি মাটিতে পড়ার পর কিছুটা ভিতরের দিকে আসে। এদিকে রাহুল ভেবেছিলেন আফ্রিদির সেই হয়ত বাইরের দিকে বেরোবে। কিন্তু তা না হওয়ায় ছিটকে যায় রাহুলের উইকেট। আউট হয়ে সাজঘরে ফেরেন রাহুল। কিন্তু তিনি আউট হওয়ার পরই শুরু হয় বিতর্ক। ভাইরাল হওয়া ওই ছবিতে দেখা যায়, আফ্রিদির পা দাগের বাইরে। তা তুলে ধরেই খারাপ আম্পায়ারিংয়ের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছেন নেটজনতা।

প্রসঙ্গত, এদিন রোহিত-রাহুলের ওপেনিং জুটি আউট হয়ে ফেরার পর ইনিংসের হাল ধরেন অধিনায়ক বিরাট কোহলি। রবিবার তাঁর হাত ধরে আসে অধিনায়কোচিত এক ইনিংস। ৪৯ বলে ৫৭ রানের একটি গুরুত্বপূর্ণ ইনিংস খেলেন বিরাট। তাঁকে যোগ্য সঙ্গত দেন ঋষভ পন্থও (৩০ বলে ৩৯ রান)। এই দু’জনের দৌলতেই ২০ ওভার শেষে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৫১ রান তোলে ভারত। জবাবে ব্যাট করতে নেমে দুর্দান্ত শুরু করেন পাকিস্তানের দুই ওপেনার বাবর আজম ও মহম্মদ রিজওয়ান। এই দুই ব্যাটারের সৌজন্যে মাত্র ১৭.৫ ওভারেই কোনও উইকেট না খুইয়ে জয়ের জন্য প্রয়োজনীয় রান তুলে নেয় পাকিস্তান। গড়ে এক নতুন ইতিহাস।