‘ভুল বুঝেই বিমানে আঘাত হেনেছে ইরানের মিশাইল’, স্বীকারোক্তির পরেই ক্ষতিপূরনের দাবি ইউক্রেনের

Image source: Google

বিশেষ প্রতিবেদনঃ বুঝতে ভুল হওয়ার কারনের ইউক্রেনের বিমানে আঘাত করেছে ইরানের মিসাইল। আজ শনিবার ইরানের একটি সরকারি টিভি চ্যানেলে নিজেদের দায় স্বীকার করে এমনটাই জানানো হয়েছে ইরানের তরফে। এই ঘটনাকে তারা দুর্ভাগ্যজনক বলেও মন্তব্য করেছেন। তবে তদন্তের পর এই ঘটনার সাথে জড়িত সকলকেই যথাযথ শাস্তি দেওয়ার আশ্বাস দিয়েছে ইরান। নিজেদের ভুল স্বীকার করার পরে এবার ক্ষতিপূরনের দাবি জানিয়েছে ইউক্রেন ও কানাডা সরকার।

ইরানের সরকারি টিভি চ্যানেলে সেনাবাহিনীর তরফে দেওয়া একটি বিবৃতিতে বলা হয়েছে, দায়ত্বপ্রাপ্ত আধিকারিকেরা বুঝতে ভুল করার কারনেই এমন দুর্ভাগ্যজনক ঘটনা ঘটেছে। এই স্বীকারোক্তির পরেই সোশ্যাল মিডিয়ায় এই নারকীয় ঘটনার কড়া নিন্দা করে ইরানের শাস্তির দাবি তোলেন ইউক্রেনের রাষ্ট্রপতি ভোলোডাইমার জেলেনস্কি। ফেসবুকে এদিন তিনি লেখেন, “আমরা আশা করব এই ঘটনার জন্য যারা দায়ী আদালতে তাঁদের দোষী সাব্যস্ত করে উপযুক্ত শাস্তি দেওয়া হবে। বিচারবিভাগীয় তদন্ত করে এই ঘটনার সত্যতা সকলের সামনে তুলে ধরা হবে। সেই সঙ্গে সরকারিভাবে এই ঘটনার জন্য দায় স্বীকার করতে করে ক্ষমা চাইতে হবে তাঁদের।“

ইউক্রেনের রাষ্ট্রপতি আরও লেখেন, যাতে তদন্ত নিরপেক্ষ হয় তা দেখার জন্য ৪৫ জন বিশেষজ্ঞকে ইউক্রেন থেকে ঘটনাস্থলে পাঠানো হবে। তাঁদের তদন্তে যাতে সমস্ত রকমের সাহায্য করা হয়। এর পরেই তিনি দুর্ঘটনায় নিহত ইউক্রেনের নাগরিকদের ক্ষতিপূরন দেওয়ার দাবি তোলন। এই মর্মান্তিক ঘটনার জন্য এদিন ইরানকে আক্রমন করেন কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো। তাঁর কথায়, “এই ঘটনা জাতীয় বিপর্যয়। কানাডাবাসী অত্যন্ত মর্মাহত।“ এর পরেই মৃত ৬৩ জন বিমান যাত্রীর পরিবারকে ক্ষতিপূরন দেওয়ার দাবি তুলে ক্ষমা চাওয়ার কথাও বলেন তিনি।

আরও পড়ুনঃ  মুম্বাইতে বারবার যাতায়াত বিরক্তিকর, তাই মহানগরীতে ফ্ল্যাট কিনছেন রানু মণ্ডল

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.