মানসিক অবসাদেই কি আত্মঘাতী? জল্পনা বাড়াচ্ছে বেহালায় প্রোমোটারের মৃত্যু

মানসিক অবসাদেই কি আত্মঘাতী? জল্পনা বাড়াচ্ছে বেহালায় প্রোমোটারের মৃত্যু
মানসিক অবসাদেই কি আত্মঘাতী? জল্পনা বাড়াচ্ছে বেহালায় প্রোমোটারের মৃত্যু/ প্রতীকী ছবি

ফের শহরে অস্বাভাবিক মৃত্যু ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়ালো। দক্ষিণ কলকাতার বেহালায় প্রোমোটারের নিজস্ব বাড়িতে ঝুলন্ত অবস্থায় তার দেহ উদ্ধার করেন তার ভাই। মৃতের নাম পুষ্পেন পাল।

পুলিশ সূত্রে খবর, মঙ্গলবার সকাল ১১ টা নাগাদ রাজা রামমোহন রায় রোডের বাড়িতে সকালে ডাকাডাকি করেও তার খোঁজ পাননি মৃতের ভাই অরিন্দম পাল। এরপরে বন্ধু ঘরের দরজা খুলতেই দেখতে পান সিলিং ফ্যানের সঙ্গে ঝুলছে তার দাদা পুষ্পেন বাবু। ঘটনায় হতচকিত হয়ে অরিন্দম বাবু চেঁচামেচি শুরু করলে স্থানীয় বাসিন্দারা ঘটনাস্থলে এসে জড়ো হন। এরপর এই খবর দেওয়া হবে বেহালা থানায়। দেহ উদ্ধার করে পুলিশ বিদ্যাসাগর হাসপাতালে নিয়ে গেলে তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা। এরপরে দেহ ময়নাতদন্ত পাঠানো হয়েছে।

বাড়িতে পুষ্পেন বাবুর স্ত্রী ও ছেলে থাকতেন। ছেলের বয়স ১৬বছর। মেয়ের বিয়ে হয়ে গিয়েছে। ইতিমধ্যে অস্বাভাবিক মৃত্যু মামলা দায়ের করেছে পুলিশ।

এদিকে স্থানীয় সূত্রে খবর, ব্যবসায় প্রচুর ধার দেনা হয়ে যাওয়ায় সমস্যায় পড়েছিলেন পুষ্পেন বাবু। এই নিয়ে বেশ কিছুদিন ধরে অবসাদে ভুগছিলেন তিনি। অবসাদের জেরেই তিনি আত্মঘাতী হয়েছেন কিনা তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.