উত্তরাখণ্ডে বাড়ছে আগুনের আঁচ! গত একদিনে ৬৩ হেক্টর জঙ্গল পুড়ে ছাই! জারি অ্যালার্ট

উত্তরাখণ্ডে বাড়ছে আগুনের আঁচ! গত একদিনে ৬৩ হেক্টর জঙ্গল পুড়ে ছাই! জারি অ্যালার্ট / প্রতীকী ছবি
উত্তরাখণ্ডে বাড়ছে আগুনের আঁচ! গত একদিনে ৬৩ হেক্টর জঙ্গল পুড়ে ছাই! জারি অ্যালার্ট / প্রতীকী ছবি

গত মাসেই প্রকাশ্যে এসেছিল সিমলিপাল অভয়ারণ্যের এক ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের খবর। গতকাল একই রকম ভাবে খবরের শিরোনামে এল উত্তরাখণ্ড। উত্তরাখণ্ডের বিস্তীর্ণ বনাঞ্চলে ভয়াবহ আগুন লেগেছে। গত দুদিনে প্রায় ৪০ লক্ষ টাকার সম্পত্তি পুড়ে ছাই হয়ে গিয়েছে। উত্তরাখণ্ড প্রশাসনের তরফে জানানো হয়েছে, আগুন নেভানোর কাজ শুরু হয়েছে। তবে গত ২৪ ঘন্টায় পরিস্থিতি আরও নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গিয়েছে। প্রায় ৪৫টি নতুন অঞ্চলে আগুন ছড়িয়ে পড়েছে বলে খবর মিলেছে। জানা গিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় মোট ৬৩ হেক্টর এলাকার জঙ্গল আগুনের গ্রাসে চলে গিয়েছে।

করবেট ন্যাশনাল পার্ক-এর জঙ্গলেও আগুন লাগার সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। ইতিমধ্যেই সাবল্দে, হলদুয়া ও কাশিপুরের রেঞ্জ-এর জঙ্গল আগুন পুড়ে ছাই। শনিবার রাত পর্যন্ত রামনগরের জঙ্গল পর্যন্ত আগুন ছড়ালেও, এখন সেই আগুন তরাইয়ের পশ্চিম ভাগ পর্যন্ত ছড়িয়ে পড়েছে। যেহেতু এইসব অঞ্চল করবেট ন্যাশনাল পার্ক-এর পার্শ্ববর্তী, তাই প্রশাসনের উদ্বেগ বেড়েই চলেছে। উত্তরাখণ্ডের মন্ত্রী হরক সিং রাওয়াত জানিয়েছেন, রাজ্যের ৯৬৪টি জঙ্গলে আগুন ছড়িয়ে পড়েছে। এই সময়ে মৃদু বাতাস বইছে। তাই পরিস্থিতি আরও খারাপের দিকে যাচ্ছে।

ইতিমধ্যেই রাজ্যের বন দফতরের তরফে আগুন নেভানোর প্রক্রিয়া শুরু করা হয়েছে। আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার জন্য ১২ হাজার বন দফতর কর্মী অক্লান্ত প্রচেষ্টা চালাচ্ছেন। পর্যবেক্ষণের জন্য ওয়াচটাওয়ারও তৈরি করা হয়েছে। আপৎকালীন বৈঠকে বন দফতরের আধিকারিক ও জেলা শাসকদের সঙ্গে বসেছিলেন উত্তরাখণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী তিরথ সিং রাওয়াত। আগুন মোকাবিলায় কেন্দ্রের সাহায্য প্রার্থনাও করেছেন তিনি। পরিস্থিতি সামাল দিতে কেন্দ্রের তরফ হেলিকপ্টার এবং এনডিআরএফ জওয়ানদের উত্তরাখণ্ডে পাঠানো হয়েছে। জানানো হয়েছে, আজ থেকেই হেলিকপ্টার-এর মাধ্যমে জঙ্গলের আগুন নেভানোর চেষ্টা করা হবে।

গত ২৪ ঘণ্টায় অন্তত ৭টি পশু এবং ৪ জন মানুষের মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছে। তাই বিস্তীর্ণ অঞ্চল জুড়ে হাই অ্যালার্টও জারি করেছে উত্তরাখণ্ড প্রশাসন। বনদফতর জানিয়েছে, ২০২০ সালের পয়লা অক্টোবর-এর পর জঙ্গলে প্রায় ১০২৮ বার আগুন লাগার ঘটনা ঘটেছে। দেবদারু, পাইনসহ বহু প্রজাতির গাছ ইতিমধ্যেই আগুনের ভয়াল গ্রাসে। এমনকি বন্যপ্রাণীদের ক্ষতি হয়েছে। গত কয়েকদিনে পরিস্থিতি সামলাতে না পারলেও জারি রয়েছে প্রচেষ্টা। যত শীঘ্র সম্ভব আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা যায় আপাতত এই দিকেই নজর দিচ্ছে উত্তরাখণ্ড প্রশাসন।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.