‘লখিমপুর খেরিকে হিন্দু বনাম শিখ যুদ্ধক্ষেত্রে পরিণত করার চেষ্টা চলছে’! বিস্ফোরক টুইট বরুণ গান্ধীর

‘লখিমপুর খেরিকে হিন্দু বনাম শিখ যুদ্ধক্ষেত্রে পরিণত করার চেষ্টা চলছে’! বিস্ফোরক টুইট বরুণ গান্ধীর
‘লখিমপুর খেরিকে হিন্দু বনাম শিখ যুদ্ধক্ষেত্রে পরিণত করার চেষ্টা চলছে’! বিস্ফোরক টুইট বরুণ গান্ধীর

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ ক্রমাগত দলের কাজ নিয়ে বিরোধিতা করে চলেছেন বরুণ গান্ধী। তাঁর দল বিরোধী মন্তব্যে অস্বস্তিতে দল। ইতিমধ্যেই লখিমপুর খেরির কাণ্ড নিয়েও মুখ খুলেছেন। প্রতিবাদে সরব হয়েছেন যোগী সরকারের বিরুদ্ধে। ক্রমাগত দল বিরোধী মন্তব্য করায় ইতিমধ্যেই তাঁকে জাতীয় কর্মসমিতি থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে। কিন্তু তারপরেও তিনি চুপ করে নেই। ফের একবার টুইটে ক্ষোভ প্রকাশ করলেন উত্তরপ্রদেশ পিলভিটের সাংসদ। এদিন সকালে টুইটে তিনি অভিযোগ করেন যে, লখিমপুরে হিন্দু বনাম শিখ লড়াই বাঁধানোর চেষ্টা চলছে।

উল্লেখ্য, লখিমপুর খেরিতে যে গাড়ি দিয়ে কৃষকদের পিষে মেরে ফেলা হয়, সেই গাড়ির মালিককে গ্রেফতারের দাবী তুলেছিলেন তিনি। যোগী সরকারকেও তিনি একাধিক চিঠি দিয়েছেন লখিমপুর কাণ্ড নিয়ে এর আগে। সেই চিঠিতে তিনি উত্তরপ্রদেশ সরকার এবং পুলিশ প্রশাসনকে একহাত নিয়েছেন। এমনটাই সূত্রের খবর। এবারে আজকের টুইটেও যোগী প্রশাসনের বিরুদ্ধে মুখ খুলে বিস্ফোরক অভিযোগ করেছেন।

আজকের টুইটে বরুণ গান্ধী লেখেন, ‘লখিমপুর খেরিকে হিন্দু বনাম শিখ যুদ্ধক্ষেত্রে পরিণত করার প্রচেষ্টা করা হচ্ছে। এটা কেবল অনৈতিক ও মিথ্যা আখ্যানই নয়। এই ধরনের মিথ্যার ধাক্কায় ফের সেই ক্ষতকে জাগিয়ে তোলাটা বিপজ্জনক কাজ, যে ক্ষত সারিয়ে তুলতে প্রজন্মের পর প্রজন্ম লেগেছে। আমরা জাতীয় ঐক্যের থেকেও রাজনৈতিক ফায়দাকে কখনওই বেশি গুরুত্ব দিতে পারি না।’

এদিকে, লখিমপুর খেরির অশান্তির মূল অভিযুক্ত আশিস মিশ্রকে ১৪ দিনের বিচারবিভাগীয় হেফাজতে পাঠাল আদালত। যদিও তাকে নিজেদের হেফাজতে চেয়েছে পুলিশ। সোমবার সেই সংক্রান্ত শুনানি হওয়ার কথা।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, উত্তরপ্রদেশের লখিমপুর-খেরিতে গত রবিবার কৃষক বিক্ষোভ চলাকালীন গাড়ির চাকায় পিষ্ট হয়ে ৪ জন কৃষকের মৃত্যু হয়। এরপরেই এই ঘটনাকে ঘিরে রবিবার অগ্নিগর্ভ হয়ে ওঠে লখিমপুর খেরি। অশান্তির মাঝে পড়ে আরও ৪ জনের মৃত্যু হয়। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তাল হয়ে ওঠে গোটা দেশ। এই ঘটনায় নাম জড়ায় কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের প্রতিমন্ত্রী অজয় মিশ্রের ছেলে আশিস মিশ্রের। বলা হয়, ওই গাড়ি আশিস মিশ্রের এবং তিনি ওই গাড়িতে ছিলেন।

এরপর ওই ঘটনার ভিডিও টুইট করে বরুণ গান্ধী লেখেন, ‘লখিমপুর খেরিতে যেভাবে কৃষকদের ইচ্ছাকৃতভাবে পিষে দেওয়া হল, সেটা যে কোনও ব্যক্তির আত্মায় আঘাত করতে বাধ্য। পুলিশের উচিত এই ভিডিওটি দেখে গাড়ির মালিকদের সনাক্ত করে গ্রেপ্তার করা।’