রবিবার, ০২ অক্টোবর, ২০২২

যন্ত্রণায় কাহিল মহিলা! ত্রাতা হয়ে এগিয়ে এসে ফুটপাতেই সন্তান প্রসব করালেন মহিলা পুলিশ কর্মী

মৌসুমী মোদক

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২২, ২০২২, ১০:৫১ পিএম | আপডেট: সেপ্টেম্বর ২২, ২০২২, ১০:৫১ পিএম

যন্ত্রণায় কাহিল মহিলা! ত্রাতা হয়ে এগিয়ে এসে ফুটপাতেই সন্তান প্রসব করালেন মহিলা পুলিশ কর্মী
যন্ত্রণায় কাহিল মহিলা! ত্রাতা হয়ে এগিয়ে এসে ফুটপাতেই সন্তান প্রসব করালেন মহিলা পুলিশ কর্মী

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছিল একটি ঘটনা। চলন্ত ট্রেনের মধ্যে প্রসব বেদনায় ছটফট করছিলেন মহিলা। সেই সময় তাঁর পাশে এসে দাঁড়িয়েছিলেন এক মেডিক্যাল পড়ুয়া ছাত্রী। তাঁর সাহায্যে চলন্ত ট্রেনেই সন্তানের জন্ম দেন ওই মহিলা৷ এবার ঠিক একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি হল তামিলনাড়ুতে।

এক মহিলা পুলিশ কর্মীর তৎপরতায় ফুটপাতেই জন্ম হল এক ফুটফুটে সন্তানের। তামিলনাড়ুর এই ঘটনা প্রকাশ্যে আসতেই তুমুল হইচই নেটমাধ্যম জুড়ে৷ জানা গিয়েছে, ডিউটি শেষে বাড়ি ফেরার সময় পথেই এক মহিলার চিৎকার শুনতে পান ওই মহিলা পুলিশ কর্মী। তখন কাছে গিয়ে তিনি দেখেন ওই মহিলা প্রসব বেদনায় কাহিল।

সেই মুহূর্তে দেরি না করে সঙ্গে সঙ্গে অ্যাম্বুলেন্সে ফোন করেন ওই মহিলা পুলিশ কর্মী। কিন্তু অ্যাম্বুলেন্স আসার আগেই প্রসব বেদনা বাড়তে থাকে অন্তঃসত্ত্বা মহিলার। উপায় না দেখে তখন নিজের হাতেই মহিলাকে সাহায্যে এগিয়ে আসেন ওই পুলিশ কর্মী। ফুটপাতেই অস্থায়ী ভাবে সকল আয়োজন করে এরপর মহিলার প্রসবে সাহায্য করেন তিনি৷ এরপর ফুটপাতেই এক ফুটফুটে পুত্র সন্তানের জন্ম দেন ওই মহিলা।

এর কিছুক্ষণের মধ্যেই ঘটনাস্থলে এসে পৌঁছায় অ্যাম্বুলেন্স। তাতে চাপিয়ে মা ও সদ্যোজাতকে স্থানীয় সরকারি হাসপাতালে ভর্তির ব্যবস্থা করেন মহিলা পুলিশ কর্মীটি৷ নবজাতকের সঙ্গে তিনি ছবিও তোলেন। যে ছবিই এখন ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়ায়। জানা গিয়েছে, এখন মা ও সন্তান দু’জনেই সুস্থ রয়েছেন।

এদিকে, এই ঘটনার কথা প্রকাশ্যে আসতেই মহিলা পুলিশ কর্মীর প্রশংসায় পঞ্চমুখ নেটদুনিয়া৷ তাঁর এই মানবিক কাজের জন্য সকলেই কুর্নিশ জানিয়েছেন তাঁকে। অন্যদিকে, স্থানীয় সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা গিয়েছে, শহরের এক বাস স্ট্যান্ড লাগোয়া ফুটপাতেই নিজের দশ বছরের সন্তানকে নিয়ে থাকেন ওই অন্তঃসত্ত্বা মহিলা। দিন কয়েক আগেই তাঁর স্বামী ছেড়ে চলে যান৷ এই অবস্থায় একমাত্র সন্তানকে নিয়ে বেশ সমস্যায় মহিলা। তবে শেষ পর্যন্ত ত্রাতার ভূমিকায় এগিয়ে আসেন ওই পুলিশ কর্মী৷