প্রশংসনীয় পদক্ষেপ! ডমিনোজের সঙ্গে হাত মিলিয়ে করোনা আক্রান্তদের মুখে বিনামূল্যে খাবার তুলে দিচ্ছেন শেহওয়াগ

প্রশংসনীয় পদক্ষেপ! ডমিনোজের সঙ্গে হাত মিলিয়ে করোনা আক্রান্তদের মুখে বিনামূল্যে খাবার তুলে দিচ্ছেন শেহওয়াগ
প্রশংসনীয় পদক্ষেপ! ডমিনোজের সঙ্গে হাত মিলিয়ে করোনা আক্রান্তদের মুখে বিনামূল্যে খাবার তুলে দিচ্ছেন শেহওয়াগ

করোনার দাপটে দেশের অবস্থা কার্যত বেহাল। কান পাতলেই শোনা যাচ্ছে হাহাকার৷ শত শত লোক সামিল হচ্ছেন মৃত্যু মিছিলে৷ এর মধ্যেই দেখা দিয়েছে হাসপাতালের বেড বা অক্সিজেনের সঙ্কট। দিনের পর দিন পরিস্থিতি যেন ক্রমশ নাগালের বাইরে চলে যাচ্ছে৷ এই কঠিন পরিস্থিতিতে দেশের মানুষের পাশে দাঁড়াতে এগিয়ে আসছেন বহু সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে রাজ্যের একাধিক নামী সেলেবরা। অক্সিজেনের খোঁজ দেওয়া থেকে শুরু করে, হাসপাতালের বেডের ব্যবস্থা করা; অথবা কোভিড আক্রান্তদের মুখে খাবার তুলে দেওয়া, নিজেদের সাধ্যমতো কাজে এগিয়ে আসতে দেখা যাচ্ছে বিনোদন জগতের তারকাদের।

ঠিক সেরকমভাবে গত বছর থেকেই দেশের অসহায় মানুষগুলির পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন প্রাক্তন ক্রিকেটার বীরেন্দ্র শেহওয়াগ। এবছরও তার ব্যতিক্রম হয়নি। সম্প্রতি জনপ্রিয় পিৎজা প্রস্তুতকারক সংস্থা ‘ডমিনোজ’-এর সঙ্গে হাত মিলিয়ে তিনি নিলেন আরেক প্রশংসনীয় পদক্ষেপ। অতিমারী আবহে কোভিড আক্রান্ত রোগীদের বাড়ি বাড়ি খাবার পৌঁছে দেওয়ার দায়িত্ব নিয়েছেন তিনি। বাইরের খাবার নয়, বরং বাড়িতে রান্না করা স্বাস্থ্যসম্মত খাবারই তুলে দেওয়া হচ্ছে করোনা রোগীদের মুখে। বিভিন্ন কোভিড কেয়ার সেন্টারেও পৌঁছে যাচ্ছে সে খাবার। তবে এই পরিষেবা আপাতত দিল্লির মধ্যেই সীমাবদ্ধ। দিল্লিতে বসবাসকারী যে কোনও করোনা আক্রান্ত পরিবারের সাহায্যে এক পা বাড়িয়ে দিয়েছেন প্রাক্তন ক্রিকেটার।

সম্প্রতি নিজের অফিশিয়াল ফেসবুক অ্যাকাউন্টে এই তথ্য জানালেন শেহওয়াগ। সেখানে তিনি লেখেন, ‘পিৎজা প্রস্তুতকারক সংস্থা ডমিনোজের সঙ্গে হাত মিলিয়ে দিল্লি কোভিড আক্রান্তদের বাড়ি বাড়ি এবং কোভিড কেয়ার সেন্টারে বিনামূল্যে খাবার পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে। যদি কোনও কোভিড রোগীর খাবারের প্রয়োজন হয়, তাহলে ‘বীরেন্দ্র শেহওয়াগ ফাউন্ডেশন’-এর মেসেঞ্জারে তা জানানো হয়। সেই বাড়িতে খাবার পৌঁছে দেওয়ার ব্যবস্থা করবেন তাঁর ফাউন্ডেশন।’ পাশাপাশি ডেলিভারির কাজে সাহায্য করার জন্য ডমিনোজকে ধন্যবাদও জানিয়েছেন প্রাক্তন এই ক্রিকেটার।

প্রসঙ্গত, দিল্লির মানুষের পাশে ইতিমধ্যেই অক্সিজেন কনসেন্ট্রেটরের একটি ব্যাঙ্ক খুলেছেন বীরেন্দ্র শেহওয়াগ। করোনা রোগীদের জন্য বিনামূল্যে চালু করা ওই পরিষেবার নাম ‘রাহত কি শ্বাস’ অর্থাৎ স্বস্তির নিশ্বাস৷ শেহওয়াগ জানিয়েছেন, ওখান থেকে প্রয়োজন মতো যে কেউই অক্সিজেন কনসেন্ট্রেটর নিতে পারেন। যদিও প্রয়োজন মিটে গেলে কনসেন্ট্রেটর ফিরিয়ে দেওয়ারও অনুরোধ করেন তিনি। করোনাকালে এভাবেই বারবার মানুষের সাহায্যে এগিয়ে আসছেন প্রাক্তন এই ক্রিকেটার। তাঁর এমন উদ্যোগের প্রশংসাও করেছেন নেটিজেনরা।