পুজোর শুরুতেই বৃষ্টি কলকাতায়! আগামী কয়েকদিন কেমন থাকবে আবহাওয়া? কী বলছে হাওয়া অফিস?

পুজোর শুরুতেই বৃষ্টি কলকাতায়! আগামী কয়েকদিন কেমন থাকবে আবহাওয়া? কী বলছে হাওয়া অফিস?
পুজোর শুরুতেই বৃষ্টি কলকাতায়! আগামী কয়েকদিন কেমন থাকবে আবহাওয়া? কী বলছে হাওয়া অফিস? / প্রতীকী ছবি

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ পঞ্চমীর সকালেই কলকাতায় বৃষ্টি হল। এদিন সকালেই কলকাতা-সহ তার পার্শ্ববর্তী এলাকার কোথাও বিক্ষিপ্ত এবং কোথাও মুষলধারায় বৃষ্টি হল। চতুর্থীতেও বৃষ্টি হয়েছে। কাজেই মানুষের মনে স্বাভাবিক ভাবেই প্রশ্ন জাগছে, পুজোর বাকি দিনগুলোতেও কি বৃষ্টি হবে রাজ্যে? পুজোর বাকি দিনগুলো কেমন কাটবে? এই প্রশ্ন এখন পুজো উদ্যোক্তাদের মনেও।

জানা গিয়েছে, দক্ষিণ-পশ্চিম মৌসুমী বায়ুর বিদায় পর্ব শুরু হয়ে গিয়েছে। মৌসুমী বায়ু উইথড্রল লাইন দ্বারকা-উদয়পুর গোয়ালিয়রের উপর অবস্থিত। উত্তরপ্রদেশ এবং মধ্যপ্রদেশ থেকে আংশিকভাবে মৌসুমী বায়ু বিদায় নেওয়ার পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। হাওয়া অফিস জানাচ্ছে, আগামী ২ থেকে তিন দিনের মধ্যে বর্ষা বিদায় নেবে।

এদিকে, ঘূর্ণাবর্ত রয়েছে পূর্ব-মধ্য আরব সাগরে। নিম্নচাপ তৈরি হতে পারে আন্দামান সাগরে। সেটি পশ্চিম ও উত্তর পশ্চিম দিকে এগিয়ে দক্ষিণ ওড়িশা ও উত্তর অন্ধ্রপ্রদেশ উপকূলে পৌছবে। এর কিছুটা প্রভাব পড়বে পশ্চিমবঙ্গের উপকূলে।

আবহাওয়া দফতর জানাচ্ছে, পঞ্চমী থেকে সপ্তমী দক্ষিণবঙ্গে আকাশ পরিষ্কার থাকবে, বৃষ্টির সম্ভবনা কম। তাপমাত্রাও স্বাভাবিকের উপরে থাকবে। তবে, আর্দ্রতাজনিত অস্বস্তি কিছুটা থাকবে। বুধবার থেকে শুক্রবার অর্থাৎ অষ্টমী থেকে দশমী কলকাতা, উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনা, পূর্ব ও পশ্চিম মেদিনীপুর, হাওড়া ও হুগলিতে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে। বজ্রবিদ্যুৎ-সহ বৃষ্টিও হতে পারে। আর দক্ষিণবঙ্গের বাকি জেলাগুলিতেও আকাশ আংশিক মেঘলা থাকবে। এর সঙ্গে হালকা বৃষ্টির সম্ভবনাও রয়েছে।

অন্যদিকে, হাওয়া অফিস জানাচ্ছে, মৌসুমী বায়ু বিদায় নেওয়ায় শুষ্ক আবহাওয়ার তৈরি হবে উত্তর-পশ্চিম ভারতের রাজ্যগুলোতে। আগামী কয়েকদিন কঙ্কন গোয়া, মধ্য মহারাষ্ট্র, অন্ধ্রপ্রদেশ, তামিলনাডু পণ্ডিচেরি, কর্ণাটক ও কেরলে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা। ভারী বৃষ্টি হবে আন্দামান ও নিকোবর দ্বীপপুঞ্জেও। আন্দামান নিকোবর দ্বীপপুঞ্জ ভারী বৃষ্টির সঙ্গে ৬০ কিলোমিটার গতিবেগে ঝড় হবেও বলেও জানা গিয়েছে। পাশাপাশি ওই সময় সমুদ্রও উত্তাল থাকবে। তাই মৎস্যজীবীদের সমুদ্র যেতে নিষেধ করা হয়েছে।