তৃতীয় ও চতুর্থ দফার প্রার্থীতালিকা চূড়ান্ত করে ফেলল বিজেপির নির্বাচনী কমিটি, ঘোষণা আজ

তৃতীয় ও চতুর্থ দফার প্রার্থীতালিকা চূড়ান্ত করে ফেলল বিজেপির নির্বাচনী কমিটি, ঘোষণা আজ
তৃতীয় ও চতুর্থ দফার প্রার্থীতালিকা চূড়ান্ত করে ফেলল বিজেপির নির্বাচনী কমিটি, ঘোষণা আজ / প্রতীকী ছবি

বংনিউজ২৪x৭ডিজিটাল ডেস্কঃ রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচন শুরু হতে বাকি মাত্র আর হাতে গোনা কয়েকটি দিন। এবারের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে চলেছে ৮ দফায়। ইতিমধ্যেই রাজ্যের বর্তমান শাসকদল একবারেই ২৯৪ টি আসনের প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করে ফেলেছে। কিন্তু বিজেপি সেই রাস্তায় হাঁটছে না। তারা দফায় দফায় প্রার্থী তালিকা চূড়ান্ত করছে। প্রার্থী তালিকা চূড়ান্ত করা নিয়ে বিজেপি ধীরে চলো নীতি গ্রহণ করেছে।

শনিবার দিল্লিতে বিজেপির কেন্দ্রীয় কমিটির বৈঠকের পর, তেমনটাই মনে করা হচ্ছে। শনিবার পরের দু’দফার ভোটের জন্য বাংলার প্রার্থী তালিকা চূড়ান্ত করে ফেলেছে কমিটি এবং সেই প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করা হবে আজ, তেমনটাই জানা গিয়েছে। উল্লেখ্য, আগেই দু’দফার প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করেছে বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব।

এদিকে শনিবার, দিল্লিতে দলের সদর দফতরে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং বিজেপির অন্যান্য কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের উপস্থিতিতে দলের কেন্দ্রীয় কমিটির বৈঠকে তৃতীয় এবং চতুর্থ দফার প্রার্থী তালিকা চূড়ান্ত করা হয়েছে। এই দুই দফা মিলিয়ে মোট ৭৫ জন প্রার্থী নাম রয়েছে। তবে, এও জানা গিয়েছে যে, পরবর্তী দফাগুলির আরও কিছু আসনের নাম রবিবার ঘোষণা হয়ে যেতে পারে। এই তালিকায় কয়েকজন তারকা প্রার্থীও থাকতে পারেন বলেও খবর।

তবে, শনিবার রাতে বৈঠকের শেষে প্রার্থী তালিকায় নাম নেই মিঠুন চক্রবর্তীর। সূত্রের খবর, তিনি ভোটে লড়ছেন না। শুধুমাত্র প্রচারেই অংশ নেবেন। সূত্রের খবর এও যে, এই দুই দফার প্রার্থী তালিকার জন্য ঠিক হয়েছে যে, যারা বর্তমান বিধায়ক, তাঁদের প্রার্থী হওয়ার জন্য নিজেদের পুরনো কেন্দ্র থেকেই লড়াই করতে হবে। এক্ষেত্রে ব্যতিক্রম শুধুমাত্র কলকাতার প্রাক্তন মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়। যেহেতু বেহালা পূর্বে তাঁর স্ত্রী দাঁড়িয়েছেন, তাই তিনি চাইলে অন্য কেন্দ্র থেকেও নির্বাচনে লড়তে পারেন বলে জানা গিয়েছে। অন্যদিকে ডোমজুড় থেকে প্রার্থী হচ্ছেন রাজ্যের আর এক প্রাক্তন মন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়। এই কেন্দ্রেই গত নির্বাচনে তৃণমূলের হয়ে জিতেছিলেন রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়। এবারেও তিনি এই কেন্দ্রেই প্রার্থী হওয়ার ইচ্ছে প্রকাশ করেছেন।

অন্যদিকে বিজেপি সূত্রে খবর, বালুল সুপ্রিয়-সহ বেশ কিছু হেভিওয়েট নেতা বিধানসভা নির্বাচনে প্রার্থী হতে পারেন। জানা গিয়েছে, এদিন প্রধানমন্ত্রীর উপস্থিতিতে কেন্দ্রীয় নির্বাচন কমিটির বৈঠকের পরেও, আবার ফের বেশি রাতে আলাদা করে প্রার্থী বাছাই নিয়ে বৈঠক করেন অমিত শাহ, জে পি নাড্ডা, কৈলাস বিজয়বর্গীয় ও দিলীপ ঘোষ প্রমুখরা।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.