চিকিৎসা পরিষেবা সুনিশ্চিত করতে স্বাস্থ্যসাথী কার্ড নিয়ে রাজ্য সরকারের বড় সিদ্ধান্ত! রইল বিস্তারিত

চিকিৎসা পরিষেবা সুনিশ্চিত করতে স্বাস্থ্যসাথী কার্ড নিয়ে রাজ্য সরকারের বড় সিদ্ধান্ত! রইল বিস্তারিত
চিকিৎসা পরিষেবা সুনিশ্চিত করতে স্বাস্থ্যসাথী কার্ড নিয়ে রাজ্য সরকারের বড় সিদ্ধান্ত! রইল বিস্তারিত / ছবি সৌজন্যে- Screenshot From Facebook Video Posted By @MamataBanerjeeOfficial

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ ইতিমধ্যেই রাজ্যে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্প। রাজ্যের বহু বেসরকারি হাসপাতাল এবং নার্সিংহোমে এই প্রকল্পের সুবিধা পাওয়া যাচ্ছে। তার পরেও, বিভিন্ন জায়গায় নার্সিংহোম থেকে রোগী ফেরানোর খবর আসছিল। তাছাড়া এর আগে একাধিকবার স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পের (Swasthyasathi) বিভিন্ন প্যাকেজের বরাদ্দ রেট বৃদ্ধির দাবি জানিয়েছিল একাধিক বেসরকারি হাসপাতাল ও নার্সিংহোম।

এবার এই সব সমস্যার সমাধান করতে বড় সিদ্ধান্ত নিল রাজ্য সরকার। বেসরকারি হাসপাতাল এবং রোগী উভয়পক্ষের স্বার্থ রক্ষার্থে, স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পে ১৫-২০ শতাংশ রেট বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিল রাজ্য সরকার। রাজ্য সরকারের এই সিদ্ধান্তের ফলে, রোগী পিছু কার্ডের মাধ্যমে বেসরকারি হাসপাতাল এবং নার্সিংহোমগুলিকে যে টাকা দেওয়া হত, এবার তার থেকে ১৫ থেকে ২০ শতাংশ বেশি দেওয়া হবে। চিকিৎসা পরিষেবা সুনিশ্চিত করতেই রাজ্য সরকারের এই সিদ্ধান্ত বলে জানা গিয়েছে।

মঙ্গলবার নবান্ন-এ মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় এবং স্বাস্থ্যসচিব স্বরূপ নারায়ণ নিগম বৈঠক করেন বেসরকারি হাসপাতাল এবং নার্সিংহোম কর্তৃপক্ষের সঙ্গে। সেই বৈঠকেই প্যাকেজের রেটবৃদ্ধির কথা জানানো হয়। এই বৈঠকে হাজির ছিলেন প্রত্যেক জেলার জেলাশাসক ও স্বাস্থ্যদফতরের আধিকারিকরাও। এই বৈঠক থেকেই আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় পরিষ্কার বলেন যে, কোনভাবেই রোগীকে ফেরানো যাবে না। নবান্ন সূত্রে খবর, ১৫- ২০ শতাংশ রেট বাড়ানোর সিদ্ধান্তের জেরে আরও ২০০ কোটি টাকা অতিরিক্ত খরচ হবে রাজ্য স্বাস্থ্য দফতরের।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, এখনও পর্যন্ত প্রায় ২ কোটি মানুষ এই এই স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পের আওতায় এসেছে। দৈনিক বহু মানুষ এই পরিষেবা নিচ্ছেন। এর জন্য সরকারের খরচ হচ্ছে গড়ে ৭ কোটি টাকা। দীর্ঘদিন ধরেই রাজ্যের বেসরকারি হাসপাতাল এবং নার্সিংহোমগুলির পক্ষ থেকে এই স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পের (Swasthyasathi) বিভিন্ন প্যাকেজের বরাদ্দ রেট বৃদ্ধির দাবি জানিয়ে আসছিল। তাদের তরফ থেকে অভিযোগ করা হচ্ছিল যে, সরকারের বেঁধে দেওয়া রেটে বেসরকারি হাসপাতাল ও নার্সিংহোমে চিকিৎসা দিতে সমস্যা হচ্ছে। এবার সরকারের এই নতুন সিদ্ধান্তের মধ্যে দিয়ে কার্যত তাঁদের সেই দাবিকেই মান্যতা দেওয়া হল।

সাংবাদিকদের উদ্দেশে এদিন মুখ্যসচিব বলেন যে, হাসপাতাল এবং নার্সিংহোমগুলির সঙ্গে কথা হয়েছে, ওদের পক্ষ থেকে আগেও বলা হয়েছিল, পরিষেবা দিতে যাতে ওদের কোনও আর্থিক ক্ষতির সম্মুখিন না হতে হয়, তা সুনিশ্চিত করার জন্য। সেই জন্যই যতটা সম্ভব রেট বাড়ানো হল এই প্রকল্পে। পাশপাশি তিনি এও উল্লেখ করেন যে, এখনও কিছু রোগী ফেরানোর অভিযোগ আসছে। তবে, খুব শীঘ্রই সব সমস্যা মিটিয়ে ফেলা হবে। উল্লেখ্য, রাজ্য সরকার আরও ৮০ লক্ষ স্বাস্থ্যসাথী কার্ড দেওয়ার পরিকল্পনা নিয়েছে।

আরো পড়ুনঃ   রাজ্যে ১২৫ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনীর রদ বদল বেশ কিছু ক্ষেত্রে