সোমবার, ২৪ জানুয়ারি, ২০২২

কলকাতার এই সব ট্রাম ডিপোতে শিল্প হাব তৈরির সিদ্ধান্ত রাজ্যের! থাকবে সোনা থেকে রসগোল্লা

০২:৪৫ পিএম, জানুয়ারি ১৪, ২০২২

কলকাতার এই সব ট্রাম ডিপোতে শিল্প হাব তৈরির সিদ্ধান্ত রাজ্যের! থাকবে সোনা থেকে রসগোল্লা

পশ্চিমবঙ্গে শিল্প নেই। বারংবার এই অভিযোগে রাজ্য সরকারকে বিদ্ধ করেন বিরোধীরা। রাজ্যের তরফে বিপুল অর্থ খরচ করে শিল্প সম্মেলন করলেও শিল্পের দেখা মেলে না। ফলে বাড়ছে বেকারত্বের সংখ্যা। এই অভিযোগের অবসান ঘটিয়ে এবার রাজ্যবাসীর জন্য সুখবর নিয়ে হাজির হল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার। শিল্পের উন্নয়নের জন্য রাজ্যে এখন নেওয়া হচ্ছে একের পর এক উদ্যোগ। এবার রাজ্যের কুটির শিল্পকে নয়া দিশা দেখানোর পথে হাঁটল সরকার।

এবার রাজ্যে শিল্পের উন্নয়নের জন্য শহর কলকাতার বুকে শিল্প হাব তৈরির পরিকল্পনা করেছে সরকার। শহরের ট্রাম ডিপোগুলিকে পরিণত করা হবে শিল্প হাবে। আপাতত কালীঘাট, রাজাবাজার এবং বেলগাছিয়ায় যে সকল ট্রাম ডিপো রয়েছে সেগুলিতেই গড়ে তোলা হবে এই শিল্প হাব। এই তিনটি ট্রাম ডিপোকে যথাক্রমে রসগোল্লা, বস্ত্র ও সোনার হাবে পরিণত করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

রসগোল্লার জন্য ইতিমধ্যেই জিআই তকমা পেয়েছে পশ্চিমবঙ্গ। এবার এই মিষ্টান্ন শিল্পকে আরও এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য শিল্প হাব তৈরির উদ্যোগ রাজ্য সরকারের। পাশাপাশি বেলগাছিয়ায় পরিকল্পিত স্বর্ণ হাবের মাধ্যমে খুচরো বিক্রির পাশাপাশি জোর দেওয়া হবে রপ্তানির ক্ষেত্রেও। এমনিতে পশ্চিমবঙ্গের সিঁথিতে বাংলার স্বর্ণ শিল্পীদের একটি বড় অংশ কাজ করেন। সেই সকল শিল্পীরা যাতে সারা বছর কাজ পান, সেই দিকেই লক্ষ্য এই নতুন স্বর্ণ হাবের।

এরই সঙ্গে বাংলার তাঁত শিল্পে উন্নয়নের জন্য সরকারের তরফে রাজাবাজারে বস্ত্র হাব তৈরির পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। তাঁত শিল্পকে বাঁচানোর জন্য ইতিমধ্যেই সরকারের তরফে রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় তাঁতের হাটের আয়োজন করা হয়ে থাকে। তার বাইরেও সারা বছর যাতে ক্রেতা-বিক্রেতারা বেচা-কেনা করতে পারেন, সেজন্য এই হাব তৈরি করার পরিকল্পনা নিল রাজ্য সরকার। আপাতত রাজ্যে এই তিনটি শিল্প হাব তৈরি হলে বেকারদের কর্মসংস্থানের দিকে ভালোরকম নজর দেওয়া যাবে বলেই জানা যাচ্ছে।