রবিবার, ০২ অক্টোবর, ২০২২

এবারের দুর্গাপুজোয় জেলেই থাকছেন অনুব্রত মণ্ডল! ফের খারিজ জামিনের আর্জি

আত্রেয়ী সেন

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২১, ২০২২, ০৪:৩৪ পিএম | আপডেট: সেপ্টেম্বর ২১, ২০২২, ০৪:৩৪ পিএম

এবারের দুর্গাপুজোয় জেলেই থাকছেন অনুব্রত মণ্ডল! ফের খারিজ জামিনের আর্জি
এবারের দুর্গাপুজোয় জেলেই থাকছেন অনুব্রত মণ্ডল! ফের খারিজ জামিনের আর্জি

বংনিউজ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ এবারের দুর্গাপুজোতে জেলেই থাকতে হবে অনুব্রত মণ্ডলকে। এদিন ফের বীরভূমের তৃণমূলের জেলা সভাপতির আর্জি খারিজ হয়ে যায় আদালতে। প্রভাবশালী তত্ত্বেই সিবিআই-এর বিশেষ আদালতে খারিজ হয়ে গেল আজ কেষ্টর জামিনের আর্জি। জানা গিয়েছে, ২৯ অক্টোবর পর্যন্ত জেলেই থাকবেন অনুব্রত মণ্ডল। এদিন আদালত থেকে বেরিয়ে এমনটাই জানিয়েছেন অনুব্রতর আইনজীবী অনির্বাণ গঙ্গোপাধ্যায়।

এদিন সিবিআই-এর বিশেষ আদালতের বিচারক অনুব্রত মণ্ডলকে ফের ১৪ দিনের জেল হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছেন। বুধবার অনুব্রত মণ্ডলকে আদালতে পেশ করা হয়। গরু পাচার মামলায় আজ আসানসোলের বিশেষ সিবিআই আদালতের বিচারক রাজেশ চক্রবর্তী তাঁর জামিনের আবেদন নাকচ করেন। এদিন বিচারক রাজেশ চক্রবর্তী জানান, পুজোর জন্য বন্ধ থাকবে সিবিআই আদালত। তারপর আদালতে শুনানি হবে। তবে এর মধ্যে চাইলে ৫ অক্টোবর এবং ১৯ অক্টোবর সিজেএম আদালত খোলা থাকবে। এই দু’ দিন তাঁকে আদালতে পেশ করা যেতে পারে। অন্যথায় ২৯ অক্টোবর পর্যন্ত জেলেই থাকতে হবে অনুব্রত মণ্ডলকে।

বুধবার গরু পাচার মামলায় ধৃত অনুব্রত মণ্ডলকে আসানসোলে সিবিআই- এর বিশেষ আদালতে পেশ করা হয়। এদিন ১ ঘণ্টা শুনানি চলে। ইতিমধ্যেই ৪২ দিন জেলে কাটিয়েছেন অনুব্রত মণ্ডল। এদিন বীরভূমের তৃণমূল জেলা সভাপতির শারীরিক অসুস্থতা এবং বয়সের যুক্তি দেখিয়ে জামিনের আবেদন করেন তাঁর আইনজীবী সন্দীপন গঙ্গোপাধ্যায় এবং অনির্বাণ গুহঠাকুরতা। তাঁদের দাবি ছিল, ‘গরু পাচার মামলার মূল সতীশ কুমার-সহ অনেকেই জামিন পেয়ে গিয়েছেন বা গ্রেপ্তার হননি। সিবিআই তাদের জামিন নাকচের কোনও আবেদন করেনি। অথচ আমাদের মক্কেলের নাম চার্জশিটে নেই, তাও তাঁর জামিনের আরজি খারিজ করা হচ্ছে।’ এর পাশাপাশি অনুব্রত মণ্ডলের আইনজীবীদের আরও প্রশ্ন ছিল যে, ‘গরুপাচার মামলার টাকায় অনুব্রত বহু সম্পত্তি করেছে। এটা দাবি সিবিআইয়ের। প্রমাণ আছে? অনুব্রতর জেলে ৪২ দিন পার হয়ে গিয়েছে, তবু কেন তদন্ত এখনও শেষ হল না? রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব বলে?’

অন্যদিকে, সিবিআই- এর আইনজীবীরা আদালতে এদিন পাল্টা বলেন, ‘অনুব্রত মণ্ডলের বেনামে ১৫ থেকে ১৯টি নতুন সম্পত্তির হদিশ মিলেছে। প্রচুর নগদ উদ্ধার হয়েছে। দু’টি এনজিওর খোঁজ মিলেছে। উনি প্রভাবশালী ব্যক্তি। জেলের বাইরে থাকলে সাক্ষ্যপ্রমাণ নষ্টের চেষ্টা করতে পারেন। তদন্ত প্রভাবিত হবে।’ যদিও এক্ষেত্রে অনুব্রতর আইনজীবীরা পাল্টা জানান আদালতে যে, ‘সিবিআই সব নথি পেশ করেছে। চার্জশিট হয়ে গিয়েছে। তবু কী করে মক্কেল জামিন পেলে তদন্ত প্রভাবিত করতে পারবে? জামিন মঞ্জুর করুন।’ উভয়পক্ষের সওয়াল জবাব শোনার পর এদিন বিচারক অনুব্রতর জামিনের আর্জি খারিজ করে দেন ফের একবার।

উল্লেখ্য, গ্রেফতারির ৬০ দিনের মধ্যে চার্জশিট জমা করতে হয়। সেক্ষেত্রে ১১ অক্টোবরের মধ্যে অনুব্রত মণ্ডলের বিরুদ্ধে চার্জশিট দিতে হবে। সূত্রের খবর, ২৮ বা ২৯ অক্টোবর সাপ্লিমেন্টারি চার্জশিট জমা করবে সিবিআই।