বৃহস্পতিবার, ২৬ মে, ২০২২

কোটি টাকা মূল্যের তক্ষক পাচারের চেষ্টা! পুলিশের জালে তিন পাচারকারী

চৈত্রী আদক | তনুজ জৈন

প্রকাশিত: মে ১৪, ২০২২, ০৮:০০ এএম | আপডেট: মে ১৪, ২০২২, ০৮:৫০ এএম

কোটি টাকা মূল্যের তক্ষক পাচারের চেষ্টা! পুলিশের জালে তিন পাচারকারী
কোটি টাকা মূল্যের তক্ষক পাচারের চেষ্টা! পুলিশের জালে তিন পাচারকারী

বংনিউজ২৪×৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ প্রায় কোটি টাকা মূল্যের একটি তক্ষক উদ্ধারকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্য মালদার হরিশ্চন্দ্রপুর এলাকায়। জানা গিয়েছে, ওই তক্ষকটিকে পাচার করার উদ্দেশ্যে প্রস্তুতি নিচ্ছিল পাচারকারীরা। বৃহস্পতিবার রাতে গোপন সূত্রে খবর পেয়ে হরিশ্চন্দ্রপুর থানা এলাকার কুমেদপুর বাইপাস সংলগ্ন অঞ্চলের একটি পেট্রোল পাম্পে হানা দেয় হরিশ্চন্দ্রপুর থানার পুলিশ। সেখান থেকে উদ্ধার করে তক্ষকটিকে। পাচারকার্জে যুক্ত তিন অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা হয়।

জানা গিয়েছে, ধৃতদের নাম জয়নাল আবেদীন (৪০), আবু তালেব (৩৮) ও রুদাল চৌধুরী (৪০)। ধৃতদের প্রত্যেকেই হরিশ্চন্দ্রপুর ২ নম্বর ব্লক এলাকার বিভিন্ন গ্রামের বাসিন্দা। সূত্রের খবর, ওই তিন ব্যক্তি বসিরহাট থেকে তক্ষকটিকে নিয়ে বিহার হয় চিনের উদ্দেশ্যে রওনা দেওয়ার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছিল। কিন্তু গোপন সূত্রে খবর পেয়ে তাদের ওই গোপন ডেরায় হানা দেয় পুলিশ। তক্ষকটিকে উদ্ধার করার পাশাপাশি ধৃতদের গ্রেফতার করা হয়।

জানা গিয়েছে, উদ্ধার হওয়া তক্ষকটি বিরল প্রজাতির। দৈর্ঘ্য প্রায় ১২ ইঞ্চি। পুলিশ জানিয়েছে, হরিশ্চন্দ্রপুর-বিহার সীমান্তবর্তী অঞ্চল দিয়ে নেপাল নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল তক্ষকটিকে। সেখান থেকে প্রাণীটিকে চিনে পাচার করা হতো। তবে আগেভাগে পুলিশ খবর পাওয়ায় পাচার করতে অক্ষম হয় ধৃতরা। এরপর তক্ষকটিকে উদ্ধার করে বনদফতরের হাতে তুলে দেয় পুলিশ।

এই প্রসঙ্গে হরিশ্চন্দ্রপুর থানার আইসি সঞ্জয় কুমার দাস জানান, “আমরা গোপন সূত্রে খবর পেয়ে ওই তক্ষকটিকে উদ্ধার করার পাশাপাশি তিন ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছি। কী উদ্দেশ্যে এবং কোথায় তারা তক্ষকটিকে নিয়ে যাচ্ছিল সেই সম্পর্কে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।” অন্যদিকে বনদফতরের চাঁচোল রেঞ্জের আধিকারিক মনীন্দ্রনাথ থোকদার বলেছেন, “এই তক্ষকটিকে আপাতত বনদফতরের অধীনেই রাখা হবে। এরপর আদালত যা নির্দেশ দেবে সেই মোতাবেক কাজ করা হবে।”

প্রসঙ্গত, বিদেশে এক একটি তক্ষকের মূল্য আকাশছোঁয়া। বিশেষ করে চিনে এই তক্ষক পিছু ন্যূনতম ৫০ লক্ষ থেকে এক কোটি টাকা পর্যন্ত দাম পাওয়া যায়। আকারে খুব বড় না হলেও বিদেশে এই প্রাণীটির প্রচুর চাহিদা রয়েছে। কারণ এর থেকে ক্যান্সার, এইডস, হাঁপানির মতো রোগের ওষুধ তৈরি হয়। তাই চোরা বাজারে তক্ষকের এত দাম।