‘যা বলার পরে বলব’ মুকুল রায়ের এমন মন্তব্যে রাজনৈতিক মহলে জল্পনা তুঙ্গে

'যা বলার পরে বলব' মুকুল রায়ের এমন মন্তব্যে রাজনৈতিক মহলে জল্পনা তুঙ্গে
'যা বলার পরে বলব' মুকুল রায়ের এমন মন্তব্যে রাজনৈতিক মহলে জল্পনা তুঙ্গে

বংনিউজ২৪x৭ ডেস্কঃ আজ শুক্রবার নদিয়ার বিধায়কদের শপথের কর্মসূচি থাকায় এদিন বিধানসভায় এসে শপথ গ্রহণ করলেন কৃষ্ণনগর উত্তরের বিজেপি বিধায়ক মুকুল রায়। বিজেপিতে অনেক আগেই যোগ দিয়েছিলেন মুকুল রায়। আর এবারের বিধানসভা নির্বাচনে কৃষ্ণনগর উত্তরের তৃণমূল প্রার্থী কৌশানী মুখোপাধ্যায়কে হারিয়ে জয়ীও হন তিনি। আর এদিন ছিল বিধায়ক হিসেবে শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠান।

এদিন মুখ্যমন্ত্রী এবং মন্ত্রীরা যে গেট দিয়ে বিধানসভায় প্রবেশ করেন, সেই গেট দিয়েই ঢোকেন মুকুল। তারপর তৃণমূল পরিষদীয় দলের ঘরে যান প্রাক্তন তৃণমূল নেতা। সেখানে এক সরকারি আধিকারিকের সঙ্গে বেশ কিছুক্ষণ কথা বলে চলে যান শপথগ্রহণ কক্ষে। সেখানে প্রোটেম স্পিকার সুব্রত মুখোপাধ্যায় শপথবাক্য পাঠ করান। পরে অধিবেশন কক্ষে থাকা তৃণমূলের রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সীর সঙ্গেও বেশ কিছুক্ষণ কথা বলতে দেখা যায় মুকুল রায়কে।

তবে বিধানসভা ভবন থেকে বেরিয়ে যাওয়ার সময় তাঁর প্রতিক্রিয়া জানাতে চাওয়ায় বিজেপি বিধায়ক মুকুল রায় প্রথমে কিছু বলতে চাননি। পরে বলেন, “আমি এখন কিছু বলব না। যখন বলার হবে, তখন সাংবাদিকদের ডেকে নেব।” তাঁর আরও সংযোজন “মানুষের জীবনে এমন দু’একটা দিন আসে, যখন মানুষকে চুপ থাকতে হয়।” প্রোটেম স্পিকার বর্ষীয়ান নেতা সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের সঙ্গে কি কথা হয়েছে তাঁর সেকথা জানতে চাইলে তার জবাবে মুকুল রায় বলেন, “ওঁর সঙ্গে কথা হয়নি। তবে সুব্রত বক্সীর সঙ্গে আমার কথা হয়েছে।”

অন্যদিকে শুক্রবার বিধানসভায় নতুন বিধায়কদের সঙ্গে বৈঠক করেন বিজেপি-র রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। কিন্তু সেই বৈঠকে যোগ না দিয়েই বিধানসভা থেকে চলে যান মুকুল। সেই প্রসঙ্গে কোনও প্রশ্নের জবাব দেননি তিনি। বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন না শুভেন্দু অধিকারীও। এদিন মুকুল রায় সেভাবে কোনও প্রতিক্রিয়া না দেওয়ায় এবং দলের বৈঠকে যোগ না দেওয়ায় রাজনৈতিক মহলে জল্পনা সৃষ্টি হয়েছে। এমনকি মুকুল রায়কে নিজের কেন্দ্রে প্রচার ছাড়া সেভাবে লক্ষ্য করাও যায়নি।