উত্তরবঙ্গের তিন সভা থেকে আজ কী বক্তব্য রাখলেন মুখ্যমন্ত্রী, একনজরে দেখে নিন

উত্তরবঙ্গের তিন সভা থেকে আজ কী বক্তব্য রাখলেন মুখ্যমন্ত্রী, একনজরে দেখে নিন
উত্তরবঙ্গের তিন সভা থেকে আজ কী বক্তব্য রাখলেন মুখ্যমন্ত্রী, একনজরে দেখে নিন / ছবি সৌজন্যে : Screengrab from Facebook Video Posted By @MamataBanerjeeOfficial

বংনিউজ২৪x৭ ডেস্কঃ রাজ্যে শুরু হয়ে গেছে ভোট যুদ্ধ। সম্পন্ন হয়েছে প্রথম দফার ও দ্বিতীয় দফার ভোট প্রক্রিয়া। বাকি ৬ দফা ভোট। রাজ্যের শাসক দলে কে আধিপত্ত বিস্তার করবে তা নিয়ে চলছে রাজনৈতিক বিরোধ। রাজনৈতিক দলগুলি তাঁদের অবস্থান পাকাপক্ত করতে অনেক আগে থেকেই আসরে নেমে পড়েছে। এরইমাঝে তৃণমূল শিবিরও প্রকাশ করেছে তাদের প্রার্থী তালিকা ও নির্বাচনী ইস্তেহার। আর এবার নির্বাচনে নন্দীগ্রামে তৃণমূলের হয়ে লড়ছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। তাঁর বিপক্ষে রয়েছেন তৃণমূলের দলত্যাগী সেনা তথা বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারী। তাই বলা যায় বেশ হাড্ডাহাড্ডি লড়াই চলছে নন্দীগ্রামে। গতকালই ছিল নন্দীগামে ভোট। আর ভোটের দিন নন্দীগামের রেয়াপাড়াতে ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। আর কালকের রাত নন্দীগ্রামে কাটিয়েই সকাল সকাল উত্তরবঙ্গের পথে রওনা দেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি।

প্রসঙ্গত দ্বিতীয় দফা ভোট গ্রহণের পর জোরকদমে চলছে প্রচার। আর তারই মাঝে আজ উত্তরবঙ্গে তিনটি সভা রয়েছে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির। অন্যদিকে আজ সকাল ১১টায় কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ সভা শুরু করেন কোচবিহার, আলিপুরদুয়ারে। অর্থাৎ শুক্রবার শাসক বিরোধী দলের জনসভায় ফের একবার উত্তপ্ত উত্তরবঙ্গ। উল্লেখ্য চতুর্থ দফায় ভোট হতে চলেছে উত্তরবঙ্গে। আর তাঁর আগে আজ উত্তরবঙ্গ সফরে গেছেন মুখ্যমন্ত্রী। আজ প্রথমে দিনহাটা টাউনে সংহতি ময়দান, নাটাবাড়ি এবং শেষে ফালাকাটায় দলীয় প্রার্থীর হয়ে প্রচার চালানোর কর্মসূচি রয়েছে মুখ্যমন্ত্রীর। উত্তরবঙ্গের তিন সভা থেকে কী বললেন মুখ্যমন্ত্রী একনজরে দেখে নিন..

আজ কোচবিহারের দিনহাটা সভা থেকে মুখ্যমন্ত্রী বিজেপিকে নিশানা করে বলেন, বিজেপি তাঁকে আঘাত করেছিল যাতে তিনি বেরতে না পারেন। তবে তিনি একমাস ধরে মিটিং করছেন, আর এখনও প্রায় একমাস ধরে মিটিং করতে হবে। এছাড়া তিনি বলেন, হরিচাঁদ-গুরুচাঁদ ঠাকুরের নামে বিশ্ববিদ্যালয় করেছেন, তিনি কলেজও করে দিয়েছেন। রাজবংশী ভাষাকে স্বীকৃতি দিয়েছেন। এমনকি তিনি বলেন পঞ্চানন বর্মার জন্মদিন, বিরসা মুন্ডার জন্মদিন, হরিচাঁদ-গুরুচাঁদ ঠাকুরের জন্মদিনেও ছুটি দিয়েছেন তিনি। অন্যদিকে তিনি বলেন স্টেডিয়াম, স্টেশন, রাস্তা ইত্যাদির উন্নয়ন করেছেন এবং এখনও উন্নয়ন হচ্ছে।

অন্যদিকে কোচবিহারের নাটাবাড়ি জনসভা থেকে বলেন, কোচবিহারে তারা অনেক কাজ করেছেন, এছাড়া যেটুকু বাকি আছে তা পরবর্তী ক্ষেত্রে তাও হবে বলে জানান তিনি। কোচবিহারের নানা ধর্মীয় স্থান উন্নয়নেও তিনি অর্থ প্রদান করেছেন। এছাড়া কোচবিহারের ফালাকাটার জনসভা থেকে তিনি বলেন, কেন্দ্রীয় বাহিনী আপনাদের ভয় দেখিয়ে বিজেপিতে ভোট দিতে বললে ভয় না পেয়ে রুখে দাঁড়ানোর কথা বলেন। তিনি বলেন বাংলার মানুষ ভয় পায় না। এছাড়া মা বোনেদের হাতা, কুন্তি নিয়ে রুখে দাঁড়াতে বলে। তারই সাথে মা বোনেদের বলেন আপনারা আমাকে অনেক সাহায্য করেছেন। এভাবেই তিনি আজ উত্তরবঙ্গে তাঁর বক্তব্য রাখেন। এবং বিজেপিকে কটাক্ষ করে নানা কথা বলেন।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.