ফের বঙ্গ সফরে প্রধানমন্ত্রী! আজকের সভায় কী বক্তব্য রাখলেন তিনি দেখে নিন একনজরে

ফের বঙ্গ সফরে প্রধানমন্ত্রী! আজকের সভায় কী বক্তব্য রাখলেন তিনি দেখে নিন একনজরে
ফের বঙ্গ সফরে প্রধানমন্ত্রী! আজকের সভায় কী বক্তব্য রাখলেন তিনি দেখে নিন একনজরে

বংনিউজ২৪x৭ ডেস্কঃ রাজ্যে শুরু হয়ে গেছে ভোট যুদ্ধ। সম্পন্ন হয়েছে প্রথম দফার ও দ্বিতীয় দফার ভোট প্রক্রিয়া। বাকি ৬ দফা ভোট। রাজ্যের শাসক দলে কে আধিপত্ত বিস্তার করবে তা নিয়ে চলছে রাজনৈতিক বিরোধ। রাজনৈতিক দলগুলি তাঁদের অবস্থান পাকাপক্ত করতে অনেক আগে থেকেই আসরে নেমে পড়েছে। এরইমাঝে গেরুয়া শিবিরও কয়েক দফায় প্রকাশ করেছে তাদের প্রার্থী তালিকা ও নির্বাচনী ইস্তেহার। আর আজ ফের বঙ্গে হাজির হয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। আজ প্রথমে হুগলীতে সভা করেন প্রধানমন্ত্রী। এবং তারপর সভা করেন সোনারপুরে।

প্রসঙ্গত তৃতীয় দফা ভোটের আগে আবার রাজ্যে উপস্থিত হয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। আজকে তিনি হুগলীর সভা থেকে কী বললেন এক নজরে দেখে নিন.. মুখ্যমন্ত্রীকে নিশানা করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এখানে মিষ্টি দই বিখ্যাত। এর সাথে সাথে মানুষরাও মিষ্টি বলেন প্রধানমন্ত্রী। তবে কী করে তিক্ততা আনেন দিদি! কটাক্ষ মোদীর। এছাড়া তিনি বলেন, শিঙ্গুরে শিল্প, কর্মসংস্থান কিছুই নেই। মানুষদের সাথে প্রতারণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী এমনও দাবি করেন তিনি। মুখ্যমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে বলেন, নির্বাচন কোনও খেলা নয়, গণতন্ত্রও কোন খেলা নয়। এগুলি হল মানুষকে সেবা করা, উন্নতি করার পথ মাত্র। অন্যদিকে তিনি প্রতিশ্রুতি দেন, কৃষকদের অ্যাকাউন্টে দুর্গাপুজোর আগে পৌঁছে যাবে টাকা। আপাতত যেখানে যেখানে ভোট হয়েছে সেখানকার কৃষকদের নামের তালিকা তৈরি করার নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী।

অন্যদিকে আজ সোনারপুরের সভা থেকে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এবারে ছাপ্পা ভোট না করতে পারার কারণেই কেন্দ্রীয় বাহিনী, নির্বাচন কমিশনকে নিশানা করছে মুখ্যমন্ত্রী। এছাড়া তিনি আমফানের কথা তুলে বলেন, আমফানের সময় কেন্দ্র রাজ্যে টাকা পাঠিয়েছে, আর রাজ্য সেই টাকা লুঠ করে নিয়েছে। কেন্দ্র চাল সবজি পাঠালেও তা ক্ষতিগ্রস্থদের হাতে পৌঁছায়নি, এমনই অভিযোগ করেন প্রধানমন্ত্রী। এমনকি মুখ্যমন্ত্রী সাধারণ মানুষের রেশন লুঠ করেছে এমন কথাও তিনি বলেন। আজ মাথাভাঙা, তারকেশ্বর সহ সোনারপুর ৩ জায়গায় সভা করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। প্রত্যেক সভা থেকেই তিনি নিজেদের জয় নিয়ে আত্মবিশ্বাসী সেকথা জানান। তাঁর সাথে সাথে মুখ্যমন্ত্রী সহ তৃণমূল শিবিরকে নানা ভাবে কটাক্ষও করেন।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.