সরস্বতী পুজো মানেই হলুদের ছোঁয়া, কিন্তু এত রং থাকতে হলুদ কেন? জানেন?

সরস্বতী পুজো মানেই হলুদের ছোঁয়া, কিন্তু এত রং থাকতে হলুদ কেন? জানেন?/ নিজস্ব ছবি
সরস্বতী পুজো মানেই হলুদের ছোঁয়া, কিন্তু এত রং থাকতে হলুদ কেন? জানেন?/ নিজস্ব ছবি

নিজস্ব প্রতিবেদনঃ শহর জুড়ে প্রেমের মরশুম। একদিকে প্রেম দিবস অন্যদিকে সরস্বতী পুজো। তবে যতই থাক ভ্যালেন্টাইন্স ডে বা দুর্গাপুজো! প্রেম করার জন্য নতুন সঙ্গী খুঁজতে বাঙালির নস্টালজিক সরস্বতী পূজা। পাটভাঙ্গা শাড়ি এবং আনকোরা পাঞ্জাবি ভীড় করে শহর-গ্রামের পার্ক রেস্তোরাঁ ফাঁকা রাস্তার গলি থেকে নির্জনতা। তবে এ বছর এই দিনটার বিশেষ গুরুত্ব রয়েছে! করোনা আবহ কাটিয়ে দীর্ঘ ১১ মাস বাদে এইতো প্রথম চাক্ষুষ করার সুবর্ণ সুযোগ। ইনবক্সে জমে থাকা আবেগের বহিঃপ্রকাশ এই বিশেষ দিনেই। স্কুলের গতানুগতিক ইউনিফর্ম পড়ে, অলংকার বেশভূষা ছাড়াই সাদামাটা একঘেয়ে বিদ্যালয় আসার থেকে একদিনের জন্য অবাধ স্বাধীনতা! কোয়েড স্কুল হলে বিষয়টা আলাদা! কিন্তু ছেলেদের বিদ্যালয়ে মেয়েদের অবাধ প্রবেশ! অথবা মেয়েদের বিদ্যালয় ছেলেদের! বয়সন্ধিকালে কিশোর মনের এই অনুভূতি বোধ হয় কোনভাবেই সম্পূর্ণ ব্যক্ত করা যায় না।

এত রং থাকতে হলুদ কেনো? হিন্দিতে হলুদ রঙে বসন্তও বলা হয়ে থাকে ! ধূসর শীত কাটিয়ে উজ্জ্বল সূর্যালোকের হলুদ বর্ণচ্ছটা অন্তরাত্মাকে শুভবুদ্ধির উন্মেষ ঘটায়। এই রং শান্ত ও নিয়ন্ত্রিত রাখে শরীরকে। বাস্তুমতে হলুদ রঙের অর্থ শক্তি ও মঙ্গলদায়ক কোন কিছু নতুন করে শুরু করা। তবে অবশ্য তেলকাঁচা হলুদ মেখে স্নান করে অঞ্জলি দেওয়ার কারণ অবশ্য আলাদা। কঠিন শীতে অযত্নের স্থান থেকে ত্বকের বিভিন্ন চর্মরোগ দূর করতে, এবং উজ্জলতা বাড়াতে রীতি হিসেবে দাঁড়িয়েছে দীর্ঘদিন থেকেই। এ সময় পর্যাপ্ত পরিমাণে উৎপাদিত হলুদ গাঁদা ফুল স্থান পায় মা সরস্বতীর বন্দনায়। হলুদ গাঁদা ফুল পলাশ রাঙা ফুল মনের কোনে জমে থাকা মলিনতা সরিয়ে বসন্তের স্বাদ পেতে সত্যিই নব উদ্দোম সৃষ্টি করায়।

এই দিন উপলক্ষে, সবে হাঁটতে শেখা মেয়েরাও শাড়ি পড়ে তৃপ্তি লাভ করে! অন্যদিকে সাদা পাজামা হলুদ পাঞ্জাবী পরে ছেলেরাও কম যায় না। তাই এ সময়ে বস্ত্র বিপনী গুলিতে বেশ ভিড় হয় হলুদ শাড়ি পাঞ্জাবির চাহিদায়। ইতিমধ্যেই বিভিন্ন দোকানে দেখা মিলছে হলুদ লাল শাড়ি অপরদিকে ছেলেদের জন্য হলুদ পাঞ্জাবী।