জনপ্রিয়তার শিখরে মোদী! টুইটারে তাঁর ফলোয়ারের সংখ্যা অতিক্রম করল ৭ কোটির গণ্ডি

জনপ্রিয়তার শিখরে মোদী! টুইটারে তাঁর ফলোয়ারের সংখ্যা অতিক্রম করল ৭ কোটির গণ্ডি
জনপ্রিয়তার শিখরে মোদী! টুইটারে তাঁর ফলোয়ারের সংখ্যা অতিক্রম করল ৭ কোটির গণ্ডি

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ মোদীর বিরুদ্ধে একজোট হচ্ছে সমস্ত বিরোধী দল। ২০২৪-এর লোকসভা নির্বাচনে তাঁকে দিল্লির মসনদ থেকে ক্ষমতাচ্যুত করাই এখন মূল লক্ষ্য বিরোধীদের। তবে, এই অবস্থাতেও তাঁর জনপ্রিয়তায় ভাটা পড়েনি।

এবার টুইটারে জনপ্রিয়তার শীর্ষে পৌঁছালেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তাঁর ফলোয়ারের সংখ্যা অতিক্রম করল ৭০ মিলিয়নের গণ্ডি অর্থাৎ ৭ কোটি। উল্লেখ্য, টুইটারে সক্রিয় রাজনীতিবিদদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি মোদীর ফলোয়ার সংখ্যা। মোদীর জনপ্রিয়তার পরের স্থানেই রয়েছেন পোপ ফ্রান্সিস। তাঁর টুইটারে ফলোয়ারের সংখ্যা ৫৩ মিলিয়ন। মোদীর টুইটারে যাত্রা শুরু হয় গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী থাকাকালীন, ২০০৯ সাল থেকেই। পরের বছর, ২০১০ সালেই তাঁর ফলোয়ার সংখ্যা দাঁড়িয়েছিল ১ লক্ষে। এরপর গত বছর জুলাইয়ে তা বেড়ে ৬ কোটির গণ্ডি অতিক্রম করে। আর এবার মাত্র ১ বছরের ব্যবধানেই সক্রিয় রাজনীতিবিদদের তালিকায় সবাইকে অতিক্রম করে শীর্ষে উঠলেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, এর আগে রাজনীতিবিদদের তালিকায় টুইটারে জনপ্রিয়তার শীর্ষে ছিলেন প্রাক্তন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তবে, গত বছরের শেষে ওয়াশিংটনে ক্যাপিটল হিল-কাণ্ডের পর ট্রাম্পের অ্যাকাউন্ট সাসপেন্ড করে টুইটার। তারপর থেকেই বিশ্বের সক্রিয় রাজনীতিবিদদের টুইটারে ফলোয়ারের সংখ্যার বিচারে শীর্ষে চলে এসেছেন মোদী।

এদিকে, বর্তমানে টুইটারে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের ফলোয়ার সংখ্যা ৩০.৯ মিলিয়ন। বারাক ওবামার ফলোয়ার সংখ্যা ১২৯.৮ মিলিয়ন। ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল মাঁকরের ফলোয়ারের সংখ্যা ৭.১ মিলিয়ন। এরপর ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের ফলোয়ার সংখ্যা ২৬.৩ মিলিয়ন। আবার বিরোধী দল কংগ্রেসের নেতা রাহুল গান্ধীর ফলোয়ার সংখ্যা ১৯.৪ মিলিয়ন।