জরিমানা দিতে না পারায় নিজের মঙ্গলসূত্র খুলেই ট্রাফিক পুলিশকে দিলেন মহিলা! ভাইরাল ভিডিও…

জরিমানা দিতে না পারায় নিজের মঙ্গলসূত্র খুলেই ট্রাফিক পুলিশকে দিলেন মহিলা! ভাইরাল ভিডিও... / প্রতীকী ছবি
জরিমানা দিতে না পারায় নিজের মঙ্গলসূত্র খুলেই ট্রাফিক পুলিশকে দিলেন মহিলা! ভাইরাল ভিডিও... / প্রতীকী ছবি

হেলমেট ছাড়া স্বামীর বাইকে সওয়ারি স্ত্রীর। ট্রাফিক রুল ভাঙায় হল জরিমানা। এদিকে পকেটে নেই এক পয়সা। ট্রাফিক পুলিশের কাছে অনুনয়-বিনয় তর্ক-বিতর্ক শেষে নিরুপায় হয়ে নিজের গলার মঙ্গলসূত্র খুলে পুলিশের হাতে তুলে দিতে যান স্ত্রী। সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হল এমনই এক ভিডিও।

ঘটনাটি ঘটেছে, কর্ণাটকের হুক্কেরি বাসস্ট্যান্ডের কাছে। ভারতী বিভূতি (৩০) এবং তার স্বামী, হুক্কেরির হুলোলিহাট্টি গ্রামে একটি হোটেল চালান। রবিবার একটি খাট কিনতে মোটরসাইকেলে চড়ে তাঁরা শহরে গিয়েছিলেন। খাটের জন্য মোট ১,৭০০ টাকা ব্যয় করেন এই দম্পতি। এছাড়া বাকি ১০০ টাকায় জলখাবার খেয়েছিলেন। এদিকে ফেরার পথে হুক্কেরি বাসস্ট্যান্ডের কাছে ট্র্যাফিক পুলিশ তাঁদের আটক করেন। কারণ, তাঁদের দুজনের মাথাতেই হেলমেট ছিল না।

এরপর হেলমেট ছাড়া মোটরসাইকেল চড়ার জন্য পুলিশ ৫০০ টাকা জরিমানা করে। এদিকে কেনাকাটা শেষে দম্পতিটির কাছে যে টাকাই শেষ! তাই জরিমানা দেওয়া মতো পর্যাপ্ত টাকাও ছিল না সেসময়। বাধ্য হয়ে অনুনয়-বিনয়, বাক-বিতণ্ডা চালাতে থাকেন তাঁরা। প্রায় দুই ঘন্টা ধরে চলতে থাকে সে তর্ক। আশেপাশে লোকজনও জড়ো হয়ে যায়।

এরপরই ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন বিভূতি। নিজের গলার মঙ্গলসূত্রটি খুলে তিনি ট্রাফিক পুলিশের হাতে তুলে দেন। জরিমানা আদায় করার জন্য সেটিকে বিক্রি করা কথাও বলেন তিনি। তা দেখে হতভম্ব হয়ে যান উর্ধ্বতন পুলিশ আধিকারিকরা। শেষ মেশ তাঁদের হস্তক্ষেপেই ছাড়া পান সেই দম্পতি। মঙ্গলসূত্রটিও ফেরত পান সেই মহিলা।

দেখুন ভিডিওটি-

 

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.