লকডাউনে সন্তানের অনলাইন ক্লাসের জন্য মঙ্গলসূত্র বিক্রি করে টেলিভিশন কিনলেন মা

লকডাউনে সন্তানের অনলাইন ক্লাসের জন্য মঙ্গলসূত্র বিক্রি করে টেলিভিশন কিনলেন মা
লকডাউনে সন্তানের অনলাইন ক্লাসের জন্য মঙ্গলসূত্র বিক্রি করে টেলিভিশন কিনলেন মা

বংনিউজ২৪X৭ ডেস্কঃ মঙ্গলসূত্র বিক্রি করে টেলিভিশন কিনলেন এক মহিলা, যাতে তার সন্তানের অনলাইন ক্লাস করতে কোন বাধা না আসে। করোনা আবহের মধ্যে সন্তানের পড়াশোনায় এতটুকু আঁচ আসতে দেননি ওই মহিলা। কর্নাটকের গাদাগ জেলার রাড্ডের নাগানূর গ্রামের বাসিন্দা কস্তুরী এবং তার স্বামী নির্মান শ্রমিক। তাদের এক মেয়ে এবং এক ছেলে।

দুইজনেই সরকারি স্কুলের পড়ুয়া, এক জন ক্লাস ১০ এর ছাত্রী, আর একজন ক্লাস ৭ এর ছাত্র। কস্তুরীর কাছে একটি সোনার মঙ্গলসূত্র ছিল, যা বিক্রি করে তিনি ২০,০০০ টাকা পান। ওই টাকা দিয়ে টেলিভিশন সেট কেনেন, যাতে ডিডি চন্দনা চ্যানেলের সম্প্রচারিত হওয়া ক্লাস সন্তানেরা করতে পারে।

প্রথমে প্রতিবেশীর বাড়িতে তারা টেলিভিশন দেখে ক্লাস করত। কিছু সময় বাড়ির সদ্যসেরা অন্য অনুষ্ঠান দেখবে বলে চ্যানেল বদলে দিলে, বাচ্চারা ক্লাস করতে পারত না। তাই যাতে সঠিকভাবে বাচ্চারা ক্লাস করতে পারে, তারা যাতে ভালোভাবে পড়াশোনা করে কিছু শিখতে পারে, তাই সোনার মঙ্গলসূত্র বেচে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন কস্তুরী।

এছাড়াও স্কুল থেকে শিক্ষক-শিক্ষিকারা জানিয়েছেন, চ্যানেলের অনুষ্ঠান থেকে পড়ুয়ারা যেন ক্লাস করতে থাকে, কারণ স্কুল অনির্দিষ্ট কালের জন্য বন্ধ থাকতে পারে। ১৪,০০০ টাকা দিয়ে টেলিভিশন সেট কিনেছেন কস্তুরী আর বাকি টাকা ঘরের সংস্কারের কাজে লাগাবেন বলে ঠিক করেছেন।

ঘটনাটি জানার পর জেলার ভারপ্রাপ্ত মন্ত্রী সিসি পাটিল জানিয়েছেন সরকারের তরফ থেকে কস্তুরীকে সাহায্য করা হবে। এছাড়াও যে ব্যক্তির কাছে কস্তুরী মঙ্গলসূত্র বিক্রি করে দিয়েছিলেন, তিনি আসল কারণ জানতে পেরে মঙ্গলসূত্র ফেরত দিয়েছেন বলে জানা গিয়েছে।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.