মিলছে না সঠিক বেতন, অস্থায়ী কর্মীদের বিক্ষোভ মালদহের চাঁচল হাসপাতালে

মিলছে না সঠিক বেতন, অস্থায়ী কর্মীদের বিক্ষোভ মালদহের চাঁচল হাসপাতালে/ নিজস্ব ছবি
মিলছে না সঠিক বেতন, অস্থায়ী কর্মীদের বিক্ষোভ মালদহের চাঁচল হাসপাতালে/ নিজস্ব ছবি

নিজস্ব প্রতিবেদনঃমালদাঃতনুজ জৈন বেতন কম পাওয়ায় কর্মবিরতি নিল মালদহের চাঁচল সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালের প্রায় ১৫৫ জন পুরষ ও মহিলা অস্থায়ী কর্মী ৷ মাসের শেষে একাধিক কর্মীর বেতনে কাটছাট করে দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ তুলে ও নিজেদের দাবিতে অনড় থেকে কর্মবিরতি করেন হাসপাতালের কর্মীরা। এর আগেও বহুবার বেতন কাটার অভিযোগে কর্মবিরতি নিয়েছেন কর্মীরা।

আবারও বৃহস্পতিবার সকাল ১০ টা থেকে হাসপাতালের মূল ফটকে বসে বিক্ষোভ দেখান তাঁরা ৷ বিক্ষোভকারীদের মধ্যে নাজমিন বেগম,শম্ভু চৌহানের অভিযোগ, গত চার বছর ধরে এই হাসপাতালে পরিষেবা দিয়ে এলেও তাঁদের বেতনে কারচুপি করছে ঠিকাদার কর্তৃপক্ষ ৷ বিক্ষোভকারী কর্মীরা বলেন,আমাদের সঠিক বেতন না মেলায় সংসার চালাতে হিমশিম খেতে হচ্ছে। সঠিক বেতন না মিললে আন্দোলন চলবে। ঠিকা কোম্পানির সুপারভাইজার মোস্তাফিজুর রহমানের অভিযোগ, “হাসপাতালে প্রায় ১৫৬ জন অসস্থায়ী কর্মী রয়েছে,জানুয়ারি মাসের বেতনে সকলেরই ১৫০০-২০০০ টাকা কাটা হয়েছে। টাকা কি কারনে কাটা হল তা এখনো সুদুত্তর মেলেনি কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে। তাই আজ আমরা সব কর্মীরা কাজ স্থগিত রেখে বিক্ষোভ করছি।“

এই বিষয়ে চাঁচল হাসপাতালের নবনিযুক্ত সুপার ডাঃ লায়েক আলি জানান, “বিক্ষোভ হয়েছে আমরা বিষয়টি স্বাস্থ‍্যভবনকে জানিয়েছি। অস্থায়ী কর্মীদের বেতন নিয়ে কোম্পানিকেও জানানো হয়েছে।“ বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে বলে দাবি করেছে সুপার। তবে অস্থায়ী কর্মীদের অভিযোগ সকাল দশটা থেকে দুপুর দুটো পর্যন্ত বিক্ষোভ চলতে থাকলেও কর্তৃপক্ষরা কেউ খোঁজ নেননি।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.