বিশ্বের মোট ৪৭ টি দেশে করোনা টিকার ৪.৬৪ কোটি ডোজ পাঠিয়েছে ভারত, প্রধানমন্ত্রীর প্রশংসায় রাষ্ট্রনেতারা

বিশ্বের মোট ৪৭ টি দেশে করোনা টিকার ৪.৬৪ কোটি ডোজ পাঠিয়েছে ভারত, প্রধানমন্ত্রীর প্রশংসায় রাষ্ট্রনেতারা
বিশ্বের মোট ৪৭ টি দেশে করোনা টিকার ৪.৬৪ কোটি ডোজ পাঠিয়েছে ভারত, প্রধানমন্ত্রীর প্রশংসায় রাষ্ট্রনেতারা / ছবি সৌজন্যে- Screengrab from Facebook Video Posted By @narendramodi

বংনিউজ২৪x৭ডিজিটাল ডেস্কঃ এ পর্যন্ত বিশ্বের মোট ৪৭ টি দেশে করোনা টিকার ডোজ পাঠিয়েছে ভারত। কোথাও উপহার হিসেবে, আবার কোথাও বাণিজ্যিকভাবে। বিশ্বব্যাপী সংকটের সময় করোনাপীড়িত দেশে ভ্যাকসিন পাঠিয়ে, ভারতের এই সাহায্যের প্রচেষ্টাকে কুর্নিশ জানিয়েছে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর এই ভূমিকার প্রশংসা করেছেন বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রনেতারা।

জানা গিয়েছে যে, বৃহস্পতিবার পর্যন্ত ভারত বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ৪.৬৪ কোটি কোভিড ভ্যাকসিনের(Covid Vaccine) ডোজ পাঠিয়েছে। এইসব ভ্যাকসিনের মধ্যে আবার ৭১.২৫ লাখ ডোজ দেওয়া হয়েছে উপহার হিসেবে। আর বাকি ৩.৯৩ কোটি ডোজ বিক্রি করা হয়েছে। বিশ্বের যেসব দেশে করোনা টিকা পাঠানো হয়েছে, তার মধ্যে রয়েছে আফ্রিকা, ক্যারিবিয়ান দ্বীপপুঞ্জ, কানাডা, ল্যাতিন আমেরিকা, দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার একাধিক দেশ। বুধবার কানাডায় পাঠানো হয়েছে ৫ লাখ ডোজ।

এদিকে করোনা টিকা পাঠানোর জন্য প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর উদ্দেশে কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন অ্যান্টিগার প্রধানমন্ত্রী গ্যাসটোন ব্রাউন। সংবাদমাধ্যমে তিনি জানিয়েছেন যে, সাম্প্রতিক সময়ে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর কাছ থেকে সবথেকে বড় সাহায্য এবং সহযোগিতা লাভ করেছে তাঁর দেশ। তিনি আরও জানিয়েছেন যে, গত একশো বছরে অ্যান্টিগার দিকে এভাবে কেউ হাত বাড়িয়ে দেয়নি। এর জন্য নরেন্দ্র মোদীকে ধন্যবাদও জানিয়েছেন তিনি।

একইভাবে করোনা টিকা পাঠানোর জন্য প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন বার্বাডোজের প্রধানমন্ত্রী মিয়া আমোর। তিনি টুইট করে জানিয়েছেন যে, ‘বার্বাডোজের মানুষকে করোনার টিকা দিয়ে সাহায্য করেছেন নরেন্দ্র মোদী। এর জন্য মোদীর কাছে আমরা কৃতজ্ঞ।’

এছাড়াও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে ধন্যবাদ জানিয়েছে অর্গানাইজেশন অব আমেরিকান স্টেট(OAS)। এই গোষ্ঠীর মধ্যে রয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা, ব্রাজিল, মেক্সিকো ও আর্জেন্টিনা প্রভৃতি দেশ। এই সংগঠনের তরফে ভারতের পক্ষ থেকে ভ্যাকসিন পাঠানো নিয়ে এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে যে, বিশ্বব্যাপী এই মহামারী পরিস্থিতিতে ভারতের এই ভ্যাকসিন মৈত্রী খুবই উল্লেখযোগ্য পদক্ষেপ। সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হল, এর জন্য ভারত কোনও শর্ত চাপিয়ে দেয়নি কোনও রাষ্ট্রের প্রতি।

উল্লেখ্য, আফ্রিকার ১০ টি দেশের পাশাপাশি আফগানিস্তান, নেপাল, বাংলাদেশও ভারতে তৈরি কোভিড ভ্যাকসিন ব্যবহার করেছে। এ প্রসঙ্গে গত সপ্তাহেই ভারতের প্রশংসা করে আফগানিস্তানের প্রেসিডেন্ট আসরাফ ঘানি জানান যে, ‘ভারত বিশ্বের বৃহত্তম গণতন্ত্র এবং ভ্যাকসিনের বৃহত্তম উৎপাদক দেশ। ভারত কেবল আফগানিস্তানের সংসদ ভবনই উপহার দেয়নি, পাশাপাশি দেশের মানুষের প্রাণ বাঁচাতেও সাহায্য করেছে।’

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.