সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েও কেন্দ্রের বঞ্চনা শিকার বাংলা! শাহের সঙ্গে বৈঠকের পর অভিযোগ মুখ্যমন্ত্রীর

সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েও কেন্দ্রের বঞ্চনা শিকার বাংলা! শাহের সঙ্গে বৈঠকের পর অভিযোগ মুখ্যমন্ত্রীর
সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েও কেন্দ্রের বঞ্চনা শিকার বাংলা! শাহের সঙ্গে বৈঠকের পর অভিযোগ মুখ্যমন্ত্রীর

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ বাংলার দিকে ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় যশ। এই ঘূর্ণিঝড়ের মোকাবিলায় ইতিমধ্যেই নানা গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ নিয়েছে রাজ্য সরকার। এদিকে এই ঘূর্ণিঝড়কে কেন্দ্র করে আবারও একবার কেন্দ্র এবং রাজ্যের মধ্যে সংঘাতের বাতাবরণ সৃষ্টি হল। ঘূর্ণিঝড় যশের মোকাবিলায় কেন্দ্রের অগ্রিম অর্থ ঘোষণা নিয়ে মোটেও খুশি নন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মুখ্যমন্ত্রীর অভিযোগ, সহযোগিতার আশ্বাস দিলেও, ফের একবার কেন্দ্রের বঞ্চনার শিকার বাংলা। আর সেই কথা ইতিমধ্যেই কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে জানিয়েওছেন মুখ্যমন্ত্রী।

সোমবার এই ঘূর্ণিঝড় যশকে নিয়ে ওড়িশা, অন্ধ্রপ্রদেশ এবং বাংলার মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠকে বসেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। এরপর এই বৈঠক নিয়ে দুপুরে নবান্নে সাংবাদিক বৈঠক করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই বৈঠকে তিনি বলেন যে, ‘আজ সকালে ওড়িশা, অন্ধপ্রদেশ ও বাংলাকে নিয়ে বৈঠক করেছিলেন অমিত শাহ। ওই বৈঠকে ওঁরা সাহায্যের আশ্বাসও দিয়েছেন। অগ্রিম টাকা দেওয়ার কথা জানিয়েছেন। সেটা রাজ্যের প্রাপ্য থেকেই দেবে। ওই টাকা আমাদের এখান থেকে তুলে নিয়ে যায়। ওড়িশা ও অন্ধপ্রদেশকে দেওয়া হচ্ছে ৬০০ কোটি টাকার উপরে। আর বাংলাকে ৪০০ কোটির মতো। আমি বৈঠকে বলেছি, ওড়িশা ও অন্ধ্রপ্রদেশের থেকে বাংলা অনেক বড় রাজ্য। আমার কথা হচ্ছে, এতো বড় রাজ্য, বেশি জেলা, জনসংখ্যা বেশি থাকা সত্ত্বেও আমরা কেন বারবার বঞ্চিত হচ্ছি?’

এদিন মুখ্যমন্ত্রী আরও অভিযোগ করেছেন যে, কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দল, আমফানের সময় এ রাজ্যে এসে বাংলার ক্ষয়ক্ষতি দেখে গেলেও, একটা টাকাও সাহায্য পায়নি বাংলা। তিনি বলেন যে, ‘আমরা কেন আমাদের টাকা পাচ্ছি না? আগেরবারও আমফানের সময় কেন্দ্রীয় দল এল। কিন্তু শেষপর্যন্ত কিছুই হল না। মাছের তেলে মাছ ভাজা হল। ১০০০ কোটি টাকা অগ্রিম আমাদের টাকা থেকে দেওয়া হল। বুলবুলে পেলাম না, আমফানে পেলাম না। কোভিডেও টাকা পেলাম না। এবার আবারও একটা ঘূর্ণিঝড় আসছে।’