শাশুড়ি ও বউয়ের খোঁটায় অতিষ্ঠ! অশান্তি থেকে মুক্তি পেতে চরম পদক্ষেপ যুবকের

শাশুড়ি ও বউয়ের খোঁটায় অতিষ্ঠ! অশান্তি থেকে মুক্তি পেতে চরম পদক্ষেপ যুবকের
শাশুড়ি ও বউয়ের খোঁটায় অতিষ্ঠ! অশান্তি থেকে মুক্তি পেতে চরম পদক্ষেপ যুবকের / প্রতীকী ছবি

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ ঘরজামাই হওয়াই কাল হল। বিয়ের পর, শ্বশুরবাড়িতে স্ত্রীর সঙ্গে থাকত এক যুবক। তাই প্রতিদিনই শাশুড়ির ‘খোঁটা’ শুনতে হত তাকে। শেষে তা সহ্যের সীমা অতিক্রম করে। এর জেরে সে নিল চরম পদক্ষেপ।

দিল্লির হরিদাসনগরের ঘটনা। ৩৫ বছরের যুবক মহেশ বিয়ের পর, অনেকদিন ধরেই স্ত্রীর সঙ্গে থাকছিলেন শ্বশুরবাড়িতে। কিন্তু ঘরজামাই মহেশকে প্রতিদিনই নিজের স্ত্রী এবং শাশুড়ির থেকে কথায় কথায় খোঁটা শুনতে হত। অশান্তি নিত্য-নৈমিত্তিক ঘটনা হয়ে দাঁড়ায়। অশান্তি সহ্যের সীমা অতিক্রম করে। তাই অবশেষে প্রতিদিনের অশান্তি থেকে মুক্তি পেতে, শেষপর্যন্ত স্ত্রী এবং শাশুড়িকে খুন করল মহেশ।

জানা গিয়েছে, মহেশের ঘরজামাই হয়ে থাকা কিছুতেই মেনে নিতে পারছিলেন না মহেশের স্ত্রী বছর ২১-এর নিধি এবং বছর ৫৫-৪ শাশুড়ি বীরো। তাই অশান্তি লেগেই থাকত। শুক্রবারও অশান্তি হয়। এরপরই শাশুড়ি এবং স্ত্রীকে গুলি করে মহেশ। ঘটনাস্থলেই দুজনের মৃত্যু হয়।

ঘটনার পর অভিযুক্ত মহেশ বাবা হরিদাসনগর থানায় গিয়ে আত্মসমর্পণ করে। স্বীকার করে নেয় খুনের কথা। তার বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে এবং খুনে ব্যবহৃত অস্ত্র বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। এক পুলিশ আধিকারিক জানিয়েছেন, অভিযুক্ত মহেশ কোনও স্থায়ী কাজ করত না। এর সঙ্গে প্রতিদিন তার সঙ্গে স্ত্রী এবং শাশুড়ির অশান্তি লেগেই থাকত। এদিকে, ইতিমধ্যেই মৃতদেহগুলি ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, পুরো ঘটনা খতিয়ে দেখতে, তাঁরা বাড়ির কাছে সিসিটিভি স্ক্যান করছে। তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।