আরও চারটি মাঝারি মাপের রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংক বেসরকারিকরণের পথে! রইল বিস্তারিত

আরও চারটি মাঝারি মাপের রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংক বেসরকারিকরণের পথে! রইল বিস্তারিত
আরও চারটি মাঝারি মাপের রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংক বেসরকারিকরণের পথে! রইল বিস্তারিত

বংনিউজ২৪x৭ডিজিটাল ডেস্কঃ ফের ব্যাংকের বেসরকারিকরণের পথে হাঁটতে চলেছে কেন্দ্র সরকার। আবারও আরও চারটি মাঝারি মাপের ব্যাংককে বেসরকারিকরণ করা হবে। সরকারি সূত্রে তেমনটাই দাবি করা হয়েছে। এ প্রসঙ্গে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দুই সরকারি আধিকারিক সংবাদ সংস্থা রয়টার্স-কে জানিয়েছেন, যে চারটি ব্যাংককে এই তালিকায় রাখা হয়েছে, সেগুলি হল- ব্যাঙ্ক অব মহারাষ্ট্র, ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া, ইন্ডিয়ান ওভারসিজ ব্যাঙ্ক এবং সেন্ট্রাল ব্যাঙ্ক।

ওই একই সূত্রে জানা যাচ্ছে যে, নির্বাচিত চারটি ব্যাংকের মধ্যে দুটি ব্যাংককে ২০২১-২২ অর্থবর্ষেই বিক্রি করা হতে পারে। তবে তা কোন দুটি ব্যাংক তা এখনও জানা যায়নি। উল্লেখ্য, মাঝারি এবং ছোট মাপের ব্যাংকগুলিকে বেসরকারিকরণ করে পরিস্থিতি বুঝতে চাইছে কেন্দ্রের মোদী সরকার। এই বিষয়ে ভালা সাড়া পাওয়া গেলে, বড় রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকগুলোকে নিয়েও ভাবনাচিন্তা শুরু করবে কেন্দ্রের মোদী সরকার। তেমনটাই সূত্রের দাবি।

এদিকে ব্যাংক বেসরকারিকরণ নিয়ে ইতিমধ্যেই সমালোচনার মুখে পড়তে হয়েছে কেন্দ্রকে। এর আগে ১০ টি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকের সংযুক্তিকরণ করে কেন্দ্র সরকার। এর জেরে রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কের সংখ্যা ২৭ থেকে কমে ১২-তে নেমে এসেছে। কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্তের সমর্থনে বলা হয় যে, ব্যাঙ্কগুলির অনাদায়ী ঋণের বোঝা কমাতে এবং ঝিমিয়ে পড়া অর্থনীতি চাঙ্গা করতে সেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল।

এদিকে অর্থনীতি বিশেষজ্ঞদের মতে, ব্যাংকিং ক্ষেত্রে এটা সংস্কারের আরও একটা ধাপ। উল্লেখ্য, করোনার জেরে দেশের অর্থনীতিতে ব্যাপক প্রভাব পড়ে। স্বাভাবিকভাবেই প্রভাব পড়েছে ব্যাঙ্কিং ক্ষেত্রেও। অনাদায়ী ঋণের বোঝা বেড়েছে। যা কেন্দ্র সরকারকে এই ধরনের পদক্ষেপ নিতে প্রভাবিত করে।

অন্যদিকে ওই সূত্রের দাবি, বেসরকারিকরণের এই সিদ্ধান্তের জেরে যে, কেন্দ্র সরকারকে ফের কর্মী সংগঠনগুলির তীব্র বিরোধিতার সম্মুখীন হতে হবে, সেই আশঙ্কাও করছেন আধিকারিকরা। তাঁদের সেই আশঙ্কার কথাও জানিয়েছেন তাঁরা।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, ব্যাঙ্ক সংগঠনগুলোর হিসেবে, ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া-য় বর্তমানে ৫০ হাজার কর্মী কাজ করেন। সেন্ট্রাল ব্যাঙ্কে রয়েছেন ৩৩ হাজার কর্মী। এছাড়া ওভারসিজ ব্যাঙ্কে ২৬ হাজার এবং ব্যাঙ্ক অব মহারাষ্ট্রে ১৩ হাজার কর্মী কাজ করেন।

আরো পড়ুনঃ   টিকিট না পেয়ে এবার কী বিজেপিতে সোনালী গুহ? জল্পনা তুঙ্গে