মালদায় বাঁশবাগান থেকে উদ্ধার ৫টি উট! তবে কি পাচারের উদ্দেশ্য? তদন্তে পুলিশ

মালদায় বাঁশবাগান থেকে উদ্ধার ৫টি উট! তবে কি পাচারের উদ্দেশ্য? তদন্তে পুলিশ
মালদায় বাঁশবাগান থেকে উদ্ধার ৫টি উট! তবে কি পাচারের উদ্দেশ্য? তদন্তে পুলিশ

মালদহের চাঁচল থানার জালালপুরের এক বাঁশবাগান থেকে উদ্ধার হল পাঁচটি উট। প্রাণীগুলিকে উদ্ধার করে চাঁচল থানায় নিয়ে আসা হয়েছে৷ পুলিশ সূত্রে খবর, বাঁশবাগানের মধ্যে দড়ি বাঁধা অবস্থায় ছিল উটগুলি। খবর পেয়েই পুলিশ গিয়ে প্রাণীগুলিকে উদ্ধার করে। তবে উটগুলি কীভাবে সেখানে এল বা সেগুলিকে কেন দড়ি অবস্থায় ছিল, তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

মালদায় বাঁশবাগান থেকে উদ্ধার ৫টি উট! তবে কি পাচারের উদ্দেশ্য? তদন্তে পুলিশ
মালদায় বাঁশবাগান থেকে উদ্ধার ৫টি উট! তবে কি পাচারের উদ্দেশ্য? তদন্তে পুলিশ

ঘটনা প্রসঙ্গে চাঁচল থানার এসডিপিও শুভেন্দু মন্ডল জানান, গোপন সূত্রের খবরের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে উটগুলিকে উদ্ধার করে চাঁচল থানায় আনা হয়। উটগুলির মধ্যে তিনটি পুরুষ ও দুটি মহিলা উট রয়েছে। ওই অঞ্চল উটের বিচরণ ক্ষেত্র নয়। কে বা কারা, কোথা থেকে উটিগুলি নিয়ে এসেছে তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। তবে পুলিশের অনুমান উটগুলিকে পাচার করা হচ্ছিল। তবে এই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত কাউকে গ্রেপ্তার করা হয়নি।

যদিও ওই এলাকায় উটগুলিকে আদৌ কীভাবে আনা হল তা নিয়ে এখনও প্রশ্ন চিহ্ন রয়েছে৷ পাচারের উদ্দেশ্যই কি সঠিক? না উটগুলিকে অন্য কারণে বাঁশবাগানে বা ফেলে রাখা হল, সে নিয়েও তদন্তে পুলিশ। বর্তমানে চাঁচল থানাতেই রয়েছে এই পাঁচটি মরু প্রাণী। উটগুলির স্বাস্থ্য বা তারা কী খায় তা নিয়ে বেশ ধন্দে রয়েছেন উর্দিধারীরা। সেই কারণে প্রাণী বিশেষজ্ঞদের সঙ্গেও পুলিশ যোগাযোগ করেছে বলে জানা গিয়েছে।

মালদায় বাঁশবাগান থেকে উদ্ধার ৫টি উট! তবে কি পাচারের উদ্দেশ্য? তদন্তে পুলিশ
মালদায় বাঁশবাগান থেকে উদ্ধার ৫টি উট! তবে কি পাচারের উদ্দেশ্য? তদন্তে পুলিশ

উল্লেখ্য, কোভিডকালীন আবহে দেশে আরও বেশি করে বেড়েছে উট পাচারের ঘটনা। বিশেষ করে পশ্চিমবঙ্গকে টার্গেট করেই এগোচ্ছে পাচারকারীরা। কারণ, এই রাজ্য যোগাযোগের অন্যতম জায়গা। কোভিড পরিস্থিতিতে বেআইনিভাবে রাজস্থান থেকে ভায়া এই রাজ্য হয়েই বাইরে উট পাচারের ছক কষছে অপরাধীরা। আন্তর্জাতিক বাজারে ভারতীয় উটের দাম বেশ ভালোই। তাই প্রাণীগুলি পাচারের কাজে ইদানীং তৎপর হয়ে উঠেছে পাচারকারী এক দল গোষ্ঠী। যদিও এখনও পর্যন্ত তেমন কাউকে গ্রেপ্তার করা যায়নি।