‘একসঙ্গে এত পড়া! এত চাপ কেন?’ আধো গলায় মোদীকে নালিশ ৬ বছরের এই খুদের! রইল ভিডিও

'একসঙ্গে এত পড়া! এত চাপ কেন?' আধো গলায় মোদীকে নালিশ ৬ বছরের এই খুদের! রইল ভিডিও
'একসঙ্গে এত পড়া! এত চাপ কেন?' আধো গলায় মোদীকে নালিশ ৬ বছরের এই খুদের! রইল ভিডিও

সকাল ১০টা থেকে শুরু অনলাইন ক্লাস। শেষ হতে হতে দুপুর ২টো। ইংরেজি, অঙ্ক, উর্দু, পরিবেশ বিদ্যা, কমপিউটার পরপর এতগুলো ক্লাস করে যেতে হয় খুদেদের। ফলে মাথায় ভীষণই চাপ পড়ছে৷ এত পড়া একসঙ্গে নেওয়াই যাচ্ছে না৷ ছোটদের ওপর একবারে এত চাপ দেওয়া কি উচিৎ? সম্প্রতি এই নিয়েই মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর কাছে নালিশ জানাল একরত্তি এক খুদে৷ যে ভিডিও এখন ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়ায়।

ভিডিওতে কী দেখা যাচ্ছে? সেখানে দেখা যাচ্ছে বছর ছয়েকের মিষ্টি একটি বাচ্চা মেয়েকে। ৪৫ সেকেন্ডের সংক্ষিপ্ত ওই ভিডিওতে আধো গলায় মোদীর উদ্দেশ্যে তার নালিশ, “কেন রাখেন এত কাজ? এত পড়া করতে হয় বাচ্চাদের। সকাল ১০ টা থেকে দুপুর দুটো পর্যন্ত আমার ক্লাস চলে। প্রথমে ইংরেজি, তারপর অঙ্ক, তারপর উর্দু, তারপর পরিবেশ বিদ্যা, তারপর আবার কম্পিউটার। বাচ্চাদের জন্য এত বেশি কাজ রাখা হয়। ছোট বাচ্চাদের জন্য এত কাজ কেন রাখেন মোদি সাহাব?” এরপরই অবশ্য মেয়েটিকে বলতে শোনা যায়, “আর কি বলা যাবে।” বলে প্রধানমন্ত্রীকে ‘আস্সালাম ওয়ালিকুম’ বলে বিদায়ও জানায় সে।

এই ভিডিওই এখন ছড়িয়ে পড়েছে নেটদুনিয়া জুড়ে। সোশ্যাল মিডিয়ায় রীতিমতো ঝড় তুলে দিয়েছে ওই ভিডিও। ইতিমধ্যেই লক্ষ লক্ষ মানুষ তা দেখে ফেলেছেন। হাজার হাজার মানুষ রিট্যুইটও করেছেন তা। মেয়েটির কষ্ট দেখে তার সঙ্গে সম্মতিও জানিয়েছেন কিছু নেটিজেন। অনেকে আবার বলেছেন, করোনাকালে ঘরবন্দী থেকে বিপর্যস্ত হয়ে উঠেছে শিশুমন। তার-ই প্রতিফলন ওই ভিডিও।

প্রসঙ্গত, করোনা আবহে প্রায় গতবছর থেকেই বন্ধ দেশের সমস্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। তার বদলে বাড়ি থেকেই চলছে অনলাইন ক্লাস। তাতে চাপ বাড়ছে বই কমছে না৷ অন্যদিকে, ঘরবন্দী থাকার ফলে বদলে গিয়েছে শিশুদের জীবনযাত্রাও। বন্ধু-বান্ধবদের থেকে আলাদা হয়ে একাকী বাড়িতে কাটাতে হচ্ছে দিন। খেলার সঙ্গীদের সঙ্গেও দেখা হচ্ছে না। ফলে তার গুরুতর প্রভাব পড়ছে শিশুমনে। সেই কারণেই যেন অতিষ্ঠ হয়ে উঠছে তারা।