আজব প্রেমের গজব কাহিনী, ৬৫ বছরের রিকশাচালকের সাথে বিয়ের বন্ধনে আবদ্ধ হল ১৩ বছরের কিশোরী

প্রতীকী ছবি

বংনিউজ২৪x৭ ডেস্কঃ ১৩ বছরের মেয়েকে প্রলোভনের ফাঁদে ফেলে বিয়ে করলেন ৬৫ বছরের এক বৃদ্ধ। ঘটনায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে এলাকা জুড়ে। জানা গিয়েছে ওই ৬৫ বছরের বৃদ্ধ শামছুল হক পেশায় রিকশা চালক, তবে আগে থেকেই ওই ব্যক্তি বিবাহিত ৬ সন্তানের পিতা। তবে নাবালিকাটি অর্থাৎ ১৩ বছরের মেয়েটি নাম মরিয়ম আক্তার অষ্টম শ্রেণীতে পাঠরত ছিল। জানা গিয়েছে শামছুল হকের ছোটো মেয়ে মরিয়ম আক্তারের সাথে পরাশুনা করত। এই আজব প্রেম কি গজব কাহানির ঘটনাটি কুমিল্লা জেলার লালমাই উপজেলার পেরুলের।

তাঁরা বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছে ১০ মে। ওই ৬৫ বছরের রিকশা চালক লালমাই উপজেলার পেরুল দক্ষিণ ইউনিয়নের পেরুল গ্রামের দীঘির পাড় এলাকার বাসিন্দা। এই ঘটনার জেরে ১১ মে শামছুল হক ও মরিয়ম আক্তার কে ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে লোক মারফত নিয়ে আসেন ইউপি চেয়ারম্যান। এবং তাঁদের জিজ্ঞাসাবাদের সময় শামছুল হক বিয়ের কাবিননামা দেখিয়েছেন।সাথে সাথে জানিয়েছেন ৫ লক্ষ টাকা দেনমোহর ও ১ লক্ষ টাকা উসুল দিয়ে বিয়ে করেছেন তিনি।

নাবালিকার বাবা ঢাকায় চাকরি করত, সেই সুবাদে তাঁর বাড়ির কাজের দেখা শুনা করত, এবং স্কুল যাওয়া আশা করত শামছুল হকের রিকশাতেই। এই সময়েই আমার মেয়েকে ভুল বুঝিয়ে, প্রলোভন দেখিয়ে এই কাজ করেছে। কিভাবে সংসার করবে আমার মেয়ে? এদিকে শামছুল হকের দুই ছেলে ও তিন মেয়ের মধ্যে এক ছেলে ও এক মেয়ের বিবাহ হয়ে গিয়েছে।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.