বড় ঘোষণা কেন্দ্রের! এবার ৪৫ এর ঊর্ধ্বে সবাইকে টিকা! কবে থেকে পাবেন? রইল বিস্তারিত

বড় ঘোষণা কেন্দ্রের! এবার ৪৫ এর ঊর্ধ্বে সবাইকে টিকা! কবে থেকে পাবেন? রইল বিস্তারিত
বড় ঘোষণা কেন্দ্রের! এবার ৪৫ এর ঊর্ধ্বে সবাইকে টিকা! কবে থেকে পাবেন? রইল বিস্তারিত / প্রতীকী ছবি

বংনিউজ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ দেশব্যাপী করোনা সংক্রমণ নতুন করে ভয়াবহ আকার নিচ্ছে। প্রতিদিনই বাড়ছে সংক্রমণ। এদিকে চলছে দ্বিতীয় পর্যায়ের করোনা টিকাকরণ প্রক্রিয়া। করোনা টিকা করণের দ্বিতীয় পর্যায়ে প্রবীণ নাগরিকদের প্রাধান্য দেওয়া হয়, এর পাশাপাশি ৪৫ বছরের ঊর্ধ্বে যাঁদের কো-মর্বিডিটি রয়েছে তাঁদের করোনার টিকা দেওয়া হচ্ছে।

এবার এই টিকা করণ প্রসঙ্গে বড় ঘোষণা করা হল কেন্দ্র সরকারের পক্ষ থেকে। মঙ্গলবার কেন্দ্রীয় মন্ত্রী প্রকাশ জাভরেকর জানিয়েছেন যে, আগামী ১ এপ্রিল থেকে ৪৫ বছরের ঊর্ধ্বে সমস্ত মানুষকেই করোনার ভ্যাকসিন দেওয়া শুরু হবে।

গত বছর দেশে করোনা সংক্রমণ দেখা দিয়েছিল। সেই সংক্রমণ রুখতে দেশব্যাপী লকডাউন জারি করা হয়। তারপরেও দেশব্যাপী এই মারণ ভাইরাসের বলি হন বহু মানুষ। তবে, চলতি বছরের শুরুতেই করোনাকে পরাস্ত করতে দেশে ব্যবহারের জন্য ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে দুটি ভ্যাকসিনকে। এই দুটি ভ্যাকসিন হল কোভিশিল্ড এবং কোভ্যাক্সিন। প্রথম ধাপে বিনামূল্যে এই টিকা দেওয়া হয় প্রথম সারির করোনা যোদ্ধাদের।

এরপরই ঘোষণা করা হয় যে, দেশের প্রবীণ নাগরিকদের পাশাপাশি ৪৫ বছরের ঊর্ধ্বে যাঁদের কো-মর্বিডিটি রয়েছে, তাঁদেরও করোনার টিকা দেওয়া হবে। দ্বিতীয় পর্যায়ে এই টিকা নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী, রাষ্ট্রপতি-সহ আরও অনেকে বিশিষ্ট ব্যক্তিত্ব। তবে, এবার এই বয়সের ঊর্ধ্বে সকল মানুষকেই করোনা টিকা দেওয়ার কথা ঘোষণা করল কেন্দ্র সরকার।

আজ এক সাংবাদিক সম্মেলনে এই ঘোষণা করার পাশাপাশি সবাইকে করোনা ভ্যাকসিন নেওয়ার জন্য নাম নথিভুক্ত করার কথাও বলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী প্রকাশ জাভরেকর। তিনি বলেন যে, ‘এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে যে, আগামী ১ এপ্রিল থেকে ৪৫ বছরের ঊর্ধ্বে প্রত্যেকেই করোনা টিকা নিতে পারেন। তাই যাঁরা উপযুক্ত, আমরা তাঁদের প্রত্যেককে টিকাকরণের জন্য নিজেদের নাম নথিভুক্ত করার এবং শীঘ্রই টিকা নেওয়ার জন্য অনুরোধ জানাচ্ছি।’

অন্যদিকে সম্প্রতি পঞ্জাবে করোনার নয়া স্ট্রেনের হদিশ মিলেছে। সাংবাদিক সম্মেলনে সে প্রসঙ্গে প্রশ্ন করা হলে, তিনি জানান যে, দেশে এই ভাইরাসের একাধিক স্ট্রেন সামনে এসেছে। এই মুহূর্তে পঞ্জাব ছাড়াও আরও কিছু রাজ্যে করোনা সংক্রমণের বাড়বাড়ন্তও লক্ষ করা গেছে। মহারাষ্ট্রের অবস্থাও খারাপ। তবে, কেন্দ্র সরকার প্রত্যেক রাজ্যের সঙ্গেই আলাপ-আলোচনা করেছে। তাই এই প্রসঙ্গে তিনি দেশবাসীকে আশ্বস্ত করেছেন।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.