কার বেশি মানবিকতা? হাতির না মানুষের? দেখুন ভাইরাল ভিডিও

Image Source : Twitter

বংনিউজ২৪x৭ ডেস্কঃ গত সপ্তাহের কেরলে একটি গর্ভবতী হাতিকে যেভাবে নৃশংস ভাবে হত্যা করা হয়েছে সেই স্মৃতি এখনও দেশবাসীর কাছে দগদগে। বাজি ভরা ফল খাইয়ে হাতিকে মেরে ফেলা হয়েছে। তারপর থেকে গোটা সোশ্যাল মিডিয়ায় পশুপ্রেমী থেকে সাধারণ মানুষ, সেলিব্রিটি নিন্দার ঝড় তুলেছে। শাস্তি দিতে হবে তাঁদের এই দাবি তোলা হয়েছে। যেভাবে গর্ভস্থ সন্তানকে নিয়ে হাতিটি ছটফট করে প্রাণ হারিয়েছে তাতে এই ঘটনার পর থেকে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে হ্যাতাকারীদের চিহ্নিত করে তাঁদের শাস্তির দাবি জানানো হয়েছে।

কিন্তু এই পরিস্থিতিতে অন্যদিকে আরও একটি ঘটনা মানুষের অমানবিকতাকে চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিল। সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে তাতে দেখা গিয়েছে একটি শিশু জলে ডুবে যাচ্ছে। এমনই অবস্থা জল খেয়ে মরনাপন্ন। কিন্তু সেই শিশুকে প্রাণে বাঁচানোর জন্য প্রবল স্রোত উপেক্ষা করেও হাতিটি নদীতে নেমে এল। রীতিমতো নিজের সন্তান তুল্য ভেবে স্নেহ ভরে তাঁকে তুলে নিল, প্রাণ বাঁচাল।

ভিডিওটি টুইটারের একটি পেজ থেকে শেয়ার করা হয়েছে। যেখানে এক ব্যক্তি ক্যাপশনে লিখেছেন, হাতির বাচ্চার মনে হয়েছিল শিশুটি ডুবে যাচ্ছে তাই তাঁকে বাঁচিয়েছে, এদের মতো আমরা হতেই পারিনি। ভিডিওটি শেয়ার হওয়ার পর লক্ষ লক্ষ মানুষ ভিডিওটি দেখে ফেলেছেন। তারসঙ্গে প্রচুর লাইক কমেন্ট ও শেয়ারের বন্যা হয়ে গেছে। ভিডিওটি কার্যত সকলের চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিল মানবিকতা কাকে বলে। এই পরিস্থিতিতে যখন হাতিকে মেরে একদল মানুষ হাতি সহ গর্ভস্থ সন্তানকে হত্যা করতে পিছপা হয়না সেখানে এক মানব সন্তানকে বাঁচিয়ে হাতিটি একেবারে নজির গড়েছে। বিভিন্ন স্তরের মানুষ হাতিটিকে ধন্যবাদ দিয়েছেন।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.