সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের প্রয়াণের পর, তাঁকে নিয়ে কুরুচিকর মন্তব্য! রূপাকে পাল্টা জবাব অনুব্রতর

সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের প্রয়াণের পর, তাঁকে নিয়ে কুরুচিকর মন্তব্য! রূপাকে পাল্টা জবাব অনুব্রতর
সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের প্রয়াণের পর, তাঁকে নিয়ে কুরুচিকর মন্তব্য! রূপাকে পাল্টা জবাব অনুব্রতর

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ রাজ্যের মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের মৃত্যুর পর দলীয় থেকে শুরু করে বিরোধী দলের রাজনৈতিক নেতারা যেসময় শোকজ্ঞাপন করছিলেন, ঠিক সেই সময় তাঁকে নিয়ে কুরুচিকর মন্তব্য করতেও পিছপা হননি বিজেপি নেত্রী রূপা গঙ্গোপাধ্যায়। একজন সদ্য প্রয়াত ব্যক্তিত্বের বিরুদ্ধে এহেন কুরুচিকর আক্রমণ নিয়ে সমালোচনার ঝড় উঠেছিল রাজ্য-রাজনীতিতে। বিভিন্ন মহল রূপা গঙ্গোপাধ্যায়ের সমালোচনায় সরব হয়।

এবার সেই মন্তব্যের জন্য রূপা গঙ্গোপাধ্যায়কে তীব্র আক্রমণ করলেন তৃণমূল নেতা তথা বীরভূমের তৃণমূলের জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল। রবিবার বোলপুরের বাইরে গ্রামে এক ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলায় অতিথি হিসেবে অংশগ্রহণ করেন অনুব্রত। সেখানেই বীরভূমের জেলা তৃণমূল সভাপতি বলেন, ‘আমি রূপা গঙ্গোপাধ্য়ায়ের টুইটটা দেখেছি। জানি না রূপার মা-বাবা বেঁচে আছেন কিনা। সুব্রত মুখোপাধ্যায় ওঁর বাবার তুল্য। মানুষ মরে গেলে খারাপ হলেও কেউ খারাপ কথা বলে না। আমার মনে হয়, ওঁর মা-বাবা যখন মারা গিয়েছিলেন তখন তাদের ও কোনও খারাপ কথা বলেছিল। সেই ভাষা এখনও ঠোঁটে লেগে রয়েছে।’

ঠিক কী বলেছিলেন রূপা? সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের মৃত্যুর পর সোশ্যাল মিডিয়ায় মন্তব্য করে কার্যত শালীনতার গণ্ডী ছাড়িয়েছিলেন বিজেপি নেত্রী। তাঁর দাবি, ‘২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচনের আগে বিজেপিতে যোগ দিতে চেয়েছিলেন সুব্রত। কিন্তু চুক্তি পছন্দ হয়নি। পুজোয় জাঁকজমক করা আর টাকা তোলা ছাড়া তাঁর কোনও আবদান ছিল না।’

অন্যদিকে, কেন্দ্রের রেশন বন্ধ করা নিয়েও মোদী সরকারকে নিশানা এদিন করেন অনুব্রত মণ্ডল। তিনি বলেন, অনেক আগেই কেন্দ্র সরকার রেশন বন্ধ করে দিয়েছে। আরও অনেক কিছুই বন্ধ করে দেবে।